আপনার শিশুকে সংখ্যা গোনা শেখাচ্ছেন? কবে থেকে গুনতে শিখবে সে?

শিশু Contributor
জানা-অজানা
শিশুকে সংখ্যা গোনা
© Nadezhda1906 | Dreamstime.com

শিশুকে সংখ্যা গোনা শেখালে ঠিক কবে থেকে গুনতে শিখবে সে? আপনার মুখ থেকে কথা শুনে আধো-আধো স্বরে অস্পষ্ট উচ্চারণে ‘আম্মি’, ‘আব্বু’ বলতে শেখার ঠিক কতদিন পরে এক, দুই, তিন, চার ইত্যাদি গুণে সংখ্যা হিসেব করতে পারবে? আর কবেই বা তার মধ্যে হিসেব সংক্রান্ত ধারণা তৈরি হয়? সম্প্রতি জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির গবেষকদের গবেষণায় হদিশ মিলল তারই। গবেষণার ফলাফল ‘ডেভেলপমেন্টাল সায়েন্স’ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। গবেষকদের মতে, শিশুরা ‘এক’, ‘দুই’, ‘তিন’ ইত্যাদি বলতে পারার আগেই গণনা বিষয়টি যে আদতে কী, তার একটি ধারণা তার মনে তৈরি হয়ে যায়। আর আব্বু-আম্মুর কাছ থেকে সংখ্যা, হিসেবনিকেশ শুনে-শুনে শিশু সেই বিষয়ে একটি আন্দাজ করে নিতে শেখে!

নতুন এই গবেষণা অনুযায়ী, আগে যা মনে করা হত, তার চেয়ে অনেক আগেই শিশুরা আম্মি বা আব্বুর মুখ থেকে নানারকম সংখ্যা ও হিসেবনিকেশ শুনে গণনা বিষয়ে নিজের মনে একটা ধারণা তৈরি করে নেয়।

শিশুকে সংখ্যা গোনা শেখানো: কয়েকটি দিক

“তবে সংখ্যা যে আদতে কী, কী তার অর্থ, সে সম্পর্কে যদিও তাদের বুঝতে বেশ কিছু বছর দেরি থাকে, কিন্তু তাহলেও শিশুরা হিসেবের সঙ্গে সংখ্যার অবিচ্ছেদ্য সংযোগের ধারণা তখন থেকেই করে নিতে পারে,” জানালেন জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির কগনিটিভ সায়েন্টিস্ট এবং শিশুদের ক্ষেত্রে সংখ্যাগত সক্ষমতার বিকাশ বিশেষজ্ঞ ও এই গবেষণাপত্রের সিনিয়র লেখক লিজা ফেইগেনসন। তাঁর কথায়, “আমাদের গবেষণায় দেখা গিয়েছে, আশপাশের জগত সম্পর্কে শিশুদের কৌতূহল অসীম। বাচ্চাদের কিন্তু খুব অল্পবয়স থেকেই পারিপার্শ্বিক জগত সম্পর্কে সুন্দর ও স্পষ্ট একটা ধারণা থাকে। তার আশপাশে বড়রা কী বলছে বা কী করছে, সেগুলি তারা ছোট থেকে বুঝে নিতে চায়। আর এর ফলেই শিশুকে সংখ্যা গোনা শেখাতে গেলে তারা সংখ্যা বা সেই সংক্রান্ত হিসেবের ধারণাগুলিও করে ফেলতে থাকে।”

তবে সংখ্যা সম্পর্কে শিশুদের মনে আবছা ধারণা তৈরি হলেও মজার ব্যাপার, বেশিরভাগ শিশুই কিন্তু চারবছর বয়সেই আগে সংখ্যাগুলির পুরো অর্থ বুঝে উঠতে পারে না। তারা ছোট থেকে পরিবারের বাকি সদস্যদের কাছ থেকে যে পরিমাণ হিসেবনিকেশ শোনে, তার তুলনায় এটা কিন্তু বেশ আশ্চর্যের বিষয়! বক্তব্য ফেইগেনসনের।

বড়দের কথা শুনেই কি সংখ্যা বোঝে বাচ্চারা?

“আমরা শিশুকে সংখ্যা গোনা শেখানোর জন্য নানারকম বই কিনি, তাদের সঙ্গে জোরে-জোরে সেগুলিকে পড়ি। কিন্তু এসব করার পরেও সত্যিই কি তারা প্রিস্কুলে যাওয়ার আগে পর্যন্ত সংখ্যা গণনা বিষয়ে কোনও ধারণা করতে পারে না?”

একথা আদতে কতটা যুক্তিযুক্ত, তা বোঝার জন্য ফেইগেনসেন এবং জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির স্নাতক ও বর্তমানে রাটগার্জ ইউনিভার্সিটির অ্যাসিস্টেন্ট প্রফেসর ও এই গবেষণাপত্রের প্রথম লেখক জেনি ওয়াং ১৪ থেকে ১৮ মাস বয়স্ক শিশুদের উপর একটি সমীক্ষা চালান। তাদের সামনেই একটি বাক্সের মধ্যে কিছু খেলনা, খেলনা কুকুর, গাড়ি ইত্যাদি লুকিয়ে ফেলা হয়। এমন ব্যবস্থা করা হয় যাতে, এই বাক্সের ভিতরে কী রয়েছে তা তারা বাইরে থেকে দেখতে না পারলেও বাক্সের কাছে পৌঁছতে পারবে।

বাক্সতে খেলনাগুলো ঢোকানোর সময় গবেষকরা বাচ্চাদের সামনে “এই দেখো, এক, দুই, তিন, চার—চার চারটে কুকুর!” এইভাবে জোরে-জোরে গণনা করেন। কখনও-কখনও আবার খেলনা বাক্সে ঢোকানোর সময় গোনার বদলে তাঁরা শুধুমাত্র “এইটা, এইটা, এইটা আর এইটা—এতগুলো কুকুর!” বলে শিশুদের শোনান।

শিশুকে সংখ্যা গোনা শেখানো: শিশুমনে দ্রুত তৈরি হয় সংখ্যার ধারণা!

দেখা যায়, পরেরবার খেলনা না গুনে বাক্সে ঢোকানোর ফলে বাক্সে যে চারটে খেলনা রয়েছে, সেটি বুঝতে শিশুদের বেশ খানিক সমস্যা হয়েছিল। এক্ষেত্রে গবেষকরা বাক্স থেকে একটা খেলনা বের করার পরেই তারা ধরে নেয় যে, বাক্সে আর কিছু নেই। কিন্তু যখন খেলনাগুলি গুনে বাক্সে ঢোকানো হয়, তখনই বাক্স থেকে খেলনা বের করার সময় তারা অধীর আগ্রহে আরও বেশি খেলনা বেরনোর জন্য অপেক্ষা করে থাকে। এবং মজার ব্যাপার, বাক্সে আন্দাজ ক’টা খেলনা রয়েছে, সে সম্পর্কেও তাদের মধ্যে একটা ধারণা গড়ে ওঠে।

ওয়াং জানালেন, “দেখা গিয়েছে, বাক্সে খেলনাগুলো লুকনোর আগে যখনই আমরা বাচ্চাদের সামনে সেগুলি গুণছিলাম, তখনই তারা খেলনার সংখ্যা মনে রাখছিল। আমাদের মতো গবেষকদের কাছে এই ঘটনা অবাক করার মতোই। আর এই গবেষণার ফল থেকে এটাই বোঝা যায় যে, বড়রা যখন তাদের সামনে কোনও কিছু গোনে, তখন খুব ছোট বাচ্চারাও সে সম্পর্কে বুঝতে পারে।”

জরুরি পরবর্তী গবেষণাও

শিশুকে সংখ্যা গোনা শেখাতে গেলে সে কবে তা শিখতে পারে, এবং সেই বিষয়ে তার মনে কী ধারণা তৈরি হয়, সেটি বোঝার জন্য এই গবেষণা ইতিমধ্যেই সাড়া ফেলেছে বিজ্ঞানীমহলে। তবে এতেই থেমে না থেকে গবেষকরা এরপর এর অনুবর্তী অন্য বেশ কিছু গবেষণা করবেন বলে জানিয়েছেন। এর মধ্যে অন্যতম হল, ছোটবেলায় সংখ্যা গুনতে শিখলে তা পরবর্তী জীবনে হিসেবনিকেশের ক্ষেত্রে কোনও প্রভাব ফেলে কিনা, এবং ইংরাজিতে কথা বলা বাচ্চারা অন্য ভাষায় কোনও গণনা শুনে বুঝতে পারে কিনা, সেই সংক্রান্ত গবেষণা।