আবর্জনার স্তূপের আড়াল থেকেই রাশি রাশি বইয়ের সম্ভার

gunnar-ridderstrom-9p8ouw3C8oo-unsplash
প্রতীকী ছবি: Fotoğraf: Gunnar Ridderstrom-Unsplash

বই হল মানুষের সবথেকে প্রিয় বন্ধু এবং এর সঙ্গে আমাদের বন্ধুত্ব নির্দিষ্ট কোনও দিন, সময় বা মাস সাপেক্ষ নয়… এই বন্ধুত্ব বা সখ্যতা যাই বলি না কেন, তা চিরস্থায়ী এবং অটুট। এই প্রসঙ্গে একটা কথা আমাদের মনে পড়ে যায়.. তুরস্কের আবর্জনা সংগ্রহকারীদের দ্বারা প্রতিষ্ঠিত আঙ্কারার একটি লাইব্রেরির কথা এক্ষেত্রে আমাদের বলতেই হবে।

আবর্জনার স্তূপে অনেকদিন ধরেই পুরোনো বই দেখতে পেতেন আঙ্কারার কয়েকজন সাফাই কর্মী। পুরোনো, পাতা ছেঁড়া বই কয়েকটা আবার হতশ্রী। কিন্তু বইগুলি ফেলে দিতে বা রি সাইকলিং-এ দিতে মন চায়নি তাদের। তাই আঙ্কারার একটি শক্ত পোক্ত বাড়িতে বিভিন্ন তাকে স্থান পেল বইগুলি। কয়েকজন সাফাই কর্মীর মনে হল দৈনন্দিন বিভিন্ন স্থান থেকে এত পুরোনো বই ফেলা যায়, সেগুলি দিয়ে গ্রন্থাগার বানালে কেমন হয়। ব্যস, বাকিটা ইতিহাস।

বর্তমানে আঙ্কারার  কানকায়া জেলায়, একসময় ফেলে দেওয়া স্তূপীকৃত রাশি রাশি বই দিয়ে খোলা হল অভিনব লাইব্রেরী। স্যানিটেশন কর্মীরা কয়েক মাস ব্যয় করে, তাদের ব্যক্তিগত উদ্যোগে বইগুলিকে সংগ্রহ করেলেন। এখন শুধুমাত্র সংগ্রহই নয়, অত্যন্ত যত্ন সহকারেই তারা সেগুলোকে রক্ষণাবেক্ষণ করার প্রচেষ্টাও করেছেন। সেখানে এখন প্রায় ৬০০০টির বেশি বই রয়েছে। এমনকি স্থানীয় বাসিন্দাদের ব্যক্তিগত উদ্যোগে এবং গ্রন্থাগারটির শ্রীবৃদ্ধির জন্য আরও বেশি করে বই দান করছে স্থানীয় সরকার এবং বিভিন্ন বাসিন্দারা।  

প্রথমদিকে, গ্রন্থাগারটি কেবলমাত্র সাফাই কর্মচারী এবং তাদের পরিবারের জন্যই ছিল, তবে চাহিদা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে গ্রন্থাগারটি জনসাধারণের জন্য খোলা হয়েছিল।

সংবাদমাধ্যম, সিএনএন জানিয়েছে, কমিকস বইতে ভর্তি ছোটদের বিভাগ রয়েছে লাইব্রেরীতে, এ ছাড়া বৈজ্ঞানিক গবেষণা সংক্রান্ত এত বই সংগ্রহ করা হয়েছে, যে গ্রন্থাগারের একটি বিরাট অংশ এই বিভাগকেই উতসর্গ করা হয়েছে।

কনকায়ার মেয়র আল্পার তাসডেলেন একথা বলেছিলেন, ‘আমরা সংগৃহীত বইগুলি থেকে একটি গ্রন্থাগার নির্মাণের আলোচনা করছিলাম। সকলের সমর্থন পেয়ে প্রকল্পটি বাস্তব রূপ পায়।’ তবে স্থানীয় সরকারের তত্ত্বাবধানেই মূলত গ্রন্থাগারটি সর্বসাধারণের জন্য খোলার তদারকি শুরু হয়।

গ্রন্থাগারটি ভবনটি পূর্বে একটি খালি ইটের কারখানায় ছিল। যেখানে বর্তমানে সাহিত্য থেকে শুরু করে কল্পকাহিনি নির্ভর এবং বাস্তবধর্মী বিভিন্ন বই রয়েছে। এছাড়াও সেখানে বৈজ্ঞানিক গবেষণার পুরো বিভাগ ছিল। সংগ্রহটি সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এত বড় আকার ধারণ করেছে যে গ্রন্থাগার এখন এই উদ্ধারকৃত বইগুলি স্কুল, শিক্ষামূলক প্রোগ্রাম এবং বিভিন্ন গবেষণামূলক কাজে দিয়ে থাকে। এছাড়াও রয়েছে ইংরেজি ও ফরাসি ভাষার বই। 

তাসডেলেন বলেছিলেন, তুরস্কের গ্রামের স্কুলগুলিতে বইয়ের প্রতিনিয়ত চাহিদা রয়েছে। এই লাইব্রেরী থেকে সেখানে সরবরাহ করার কথা ভাবা হচ্ছে। গ্রন্থাগারটি পরিচালনা করার জন্য একটি পুরো সময়ের কর্মচারীও নিয়োগ করা হয়েছে। 

এটি এমন একটি গল্প যা প্রকৃতপক্ষে দেখায় যে অপ্রত্যাশিত স্থানগুলি থেকে কীভাবে দুর্দান্ত জিনিসগুলি আসতে পারে…. যখন এমন সব মানুষজনদের উদ্যোগে সমগ্র বিষয়টি পরিচালিত হয়।