উন্নাও ধর্ষণে ক্ষুব্ধ, জন্মদিন পালন করবেন না সোনিয়া

Uncategorized Tamalika Basu ০৮-ডিসে.-২০১৯

নয়াদিল্লী: ভারতজুড়ে যেভাবে নারীদের ওপর নির্যাতনের ঘটনা বেড়ে চলেছে, সেসব ঘটনায় তিনি দুঃখিত ও ক্ষুব্ধ। এ কারণে এ বছর নিজের জন্মদিন পালন না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কংগ্রেসের সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী। উন্নাওয়ে ধর্ষণের শিকার ২৩ বছর বয়সী এক নারীকে মারধর করে আদালতে যাওয়ার পথে আগুন লাগিয়ে দেয়া হয়। অবেশেষে দিল্লির হাসপাতালে মৃত্যু হয় তার। এর আগে হায়দারাবাদে একজন পশু চিকিৎসককে গণধর্ষণ করে জ্যান্ত জ্বালিয়ে মেরে ফেলা হয়। সেই সব ঘটনার জন্যই ৭৩ তম জন্মদিন না পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সোনিয়া গান্ধী।

দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে একের পর এক নারীদের ওপর অত্যাচার, অপরাধ ও ধর্ষণের ঘটনা প্রকাশ্যে আসছে। কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বলেছেন, গত ১১ মাসে উন্নাওতে প্রায় ৯০টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

১৯৪৬ সালের ৯ ডিসেম্বর ইতালির ভিন্সেনজা শহরে জন্মগ্রহণ করেন সোনিয়া গান্ধী। সেখানেই স্থানীয় এক ক্যাথলিক স্কুলে তিনি পড়াশোনা করেন। এরপর ১৯৬৪ সালে সাহিত্য পড়ার জন্য ক্যামব্রিজে পাড়ি দেন তিনি। সেখানেই রাজীব গান্ধীর সঙ্গে আলাপ হয় তার।

১৯৬৮ সালে হিন্দু মতে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন রাজীব-সোনিয়া। প্রথমদিকে রাজনীতির থেকে দূরে ছিলেন তারা। ১৯৯১ সালে রাজীব গান্ধীর মৃত্যুর পর প্রধানমন্ত্রীর আসনে বসতে আপত্তি জানান সোনিয়া গান্ধী। এরপর ১৯৯৭ সালে কংগ্রেসের প্রাথমিক সদস্য হিসেবে যোগদান করেন তিনি এবং ১৯৯৮ সালে দলের নেত্রী হন।