কর্মস্থলে প্রথম দিন, কী কী মাথায় রাখবেন?

office meeting
ID 154771088 © Lovelyday12 | Dreamstime.com

নতুন কর্মস্থল নিয়ে সব সময় কমবেশি সব সময় নানা ধরনের প্রশ্ন বা উত্তেজনা কাজ করে। নতুন জায়গা, নতুন মুখ, নতুন পরিবেশ, প্রায় সবকিছুই যখন নতুন থাকে তখন তাতে মানিয়ে নেয়ার সর্বোচ্চ চেষ্টা করাটাই যুক্তিসঙ্গত এবং করণীয়। আর কর্মস্থলের প্রথম দিনই আপনার বস এবং সহকর্মীরা আপনার বিষয়ে ধারণা লাভ করবেন। তাই প্রথম দিন কর্মস্থলে বেশ কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে। করণীয় ও বর্জনীয় বিষয়গুলো সুচিন্তিতভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে। নিজেকে মেলে ধরতে হবে আত্মবিশ্বাসের সাথে।

সময় মত অফিসে প্রবেশঃ

কর্মস্থলে সঠিক সময় উপস্থিত হওয়াটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর সেটা যদি হয় আপনার কর্মস্থলের প্রথম দিন তাহলে অবশ্যপালনীয়। তাই প্রথম দিন কর্মস্থলে যোগদানের আগের দিন থেকেই এর প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে।

পোশাক নির্বাচনঃ

কর্মক্ষেত্রে পোশাক হতে হবে ফর্মাল। দেশীয় পোশাকের গুরুত্ব দেয়া যেতে পারে। তবে যে প্রতিষ্ঠানে যোগদান করছেন সেই প্রতিষ্ঠান নিজস্ব কোন পোশাক থাকে তবে তা অবশ্যই ধারণ করতে হবে। মার্জিত পোশাকে আপনার ব্যক্তিত্বকে ফুটিয়ে তুলবে।

সদাচারী হাসিমুখঃ

প্রথম দিনই সহকর্মীদের সাথে হাসিমুখ নিয়ে সদাচারী হতে হবে। প্রথম দিনই আপনার আন্তরিক হাসি এবং আপনার সদাচরণ সবার মনে আপনার ব্যাপারে একটি ইতিবাচক ধারণা তৈরীর ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা পালন করবে।

আত্মবিশ্বাসী হওয়াঃ

নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস রাখতে হবে। যেকোনো বিষয়ে নিজেকে ছোট মনে না করা বা কোন পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটের কারণে বিচলিত না হয়ে নিজেকে আত্মবিশ্বাসী করে রাখতে হবে। তবে এখানে মনে রাখা ভাল, আত্মবিশ্বাসী এবং অহংকারী হওয়ার জায়গাটি খুবই ছোট।

সংযত থাকাঃ যেকোন যৌক্তিক কারণে মাত্রাতিরিক্ত ভালোলাগা কাজ করতে পারে। আবার প্রত্যাশা পূরণ না হওয়ার কারণে প্রচন্ড হতাশা ও কাজ করতে পারে। তবে পরিস্থিতি যাই হোক নিজেকে সংযত রাখতে হবে। আবার সহকর্মীদের সাথে আচরণ, আবেগ প্রকাশের ক্ষেত্রেও সংযত হতে হবে।

সঠিকভাবে কাজ বুঝে নেয়াঃ

আপনি যে কাজের জন্য নিয়োগপ্রাপ্ত হয়েছেন তা পরিপূর্ণরূপে এবং সঠিকভাবে কাজ বুঝে নিতে হবে। কারণ এই কাজ বুঝে নেয়ার মাধ্যমে আপনি আপনার প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট সফলভাবে করার সুযোগ পাবেন।

অপ্রয়োজনীয় কথা না বলাঃ

প্রয়োজন ছাড়া অন্য কোন কথা না বলাটাই শ্রেয়। সহকর্মীদের সাথে বসের সাথে প্রয়োজন ছাড়া ও প্রয়োজনীয় কথাবার্তা থেকে নিজেকে বিরত রাখতে হবে।

হতাশ না হওয়াঃ

কখনো কখনো কোন কোন কাজ প্রথম দিনই বুঝতে নাও পারেন। অথবা যে কেউ আপনার সাথে নেতিবাচক আচরণ করতে পারে। বা অন্য যে কোন বিষয়ে হতাশ হওয়া যাবে না। বরং হতাশ না হয়ে যেই বিষয়টির কারণে আপনার ভেতরে হতাশা চলে আসছে তা সমাধান করার জন্য পরিপূর্ণ ভাবে মনোযোগ প্রদান করুন। সমস্যা নয় সমাধানের অংশ হিসেবে নিজেকে দেখুন।

প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে ধারণা নিনঃ

প্রতিষ্ঠানে প্রবেশের পর প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন বিষয়ে আপনি প্রথমদিনই প্রাথমিক ধারণা নেয়ার চেষ্টা করুন। পরিবেশ, কাজের ধরন, বিভিন্ন বিভাগ, সহকর্মীদের অবস্থা, প্রতিষ্ঠান অবকাঠামো সহ আপনার পক্ষে যতটুকু সম্ভব প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে ধারণা নেয়ার চেষ্টা করুন।

বসকে অবহিত করুনঃ

কর্মস্থলে প্রথম দিনে আপনি অনেক বিষয় নাও বুঝতে পারেন। সেটা আপনার কাজ হোক, পরিবেশ হোক, অথবা কোনো কোনো সহকর্মীর আচরণ। যেই বিষয়টি আপনি বুঝতে পারছেন না আপনি আপনার বসকে সরাসরি অবহিত করুন। আপনার সুবিধা বা অসুবিধা বা কোন বিষয়ে কোন মতামত থাকলে ইতিবাচকভাবে বসকে বিষয়টি জানান। এখানে একটি বিষয় বলে রাখা ভালো বস কে প্রথম দিন কোনভাবেই অভিযোগের সুরে কোন বিষয় তাকে অবহিত করা যাবেনা।

শুরুটা হোক পরিপাটিভাবেঃ

নিজের ডেস্ক বা টেবিল প্রথম দিনই সুন্দরভাবে গুছিয়ে নিন। কম্পিউটার ,টেলিফোন, আইডি কার্ড, কাগজপত্রসহ ব্যবহারে আনুষঙ্গিক সকল জিনিসপত্র সুন্দরভাবে গুছিয়ে নিন। এতে কাজের প্রতি মনোযোগ বৃদ্ধি পাবে।

কর্মক্ষেত্রে প্রথম দিন সকলের জন্যই এক নতুন অভিজ্ঞতা। এই অভিজ্ঞতা ইতিবাচক এবং সুন্দর করার জন্য উপরোক্ত বিষয়গুলো কে মাথায় রেখে তা বাস্তবায়ন করতে পারলে কাজের আনন্দ এবং কাজ করার ক্ষমতা দুটোই বৃদ্ধি পাবে।