কীভাবে বাজেটে সংসার চালান আদর্শ গৃহিণী

Housewife Budget
ID 49710395 © Citalliance | Dreamstime.com

আজকের  দুনিয়াতে মেয়েরা সমান তালে বাইরে বেরোলেও  গৃহিণীর এর সংখ্যাটাই বেশি, তারাই বাড়ির আসল সুখের চাবিকাঠি । হিসাবের খাতাটা তারাই  সব থেকে ভালো নিয়ন্ত্রণ করে, চারিদিকে চোখখোলা থাকে গৃহকর্ত্রীর। নিয়মের বেড়াজাল বেঁধে রাখে গোটা সংসারের সদস্যদের । সে তার কাজের গুণে হয়ে ওঠে অপরিহার্য, তার পরিবারে এক গৃহকর্ত্রী  সবথেকে ভালো জানে তার সুখের সংসারের চাবি কাঠি। পুরো সংসারের খরচার ভার থাকে তার কাঁধে । সে খরচ করতে পারে সব থেকে বেশি। দায়িত্বশীল হয়ে বাচ্চার পড়াশোনার খরচ থেকে বাড়ির রক্ষণাবেক্ষণ  সবটাই সে সামলায় নিপুণ দক্ষতায়। শখের কেনাকাটা থেকে বেড়ানোর খরচা বাঁচানো সব দিক সামলায় সে সমান পারদর্শীতার সাথে।

বাড়ির রক্ষণাবেক্ষণ

প্রত্যেক বাড়ির রক্ষণাবেক্ষণর পিছনে কিছু পরিমাণ অর্থ  তোলা থাকে আমাদের প্রত্যেকেরই। সেই টাকাটা কোন খাতে খরচ হবে সব থেকে ভালো বোঝে আমাদের বাড়ির গৃহিণীরা। বাড়ির ছাদ রক্ষণাবেক্ষণ  থেকে জলের পাইপ সব দিকেই তাদের কড়া নজর থাকে বাড়তি খরচ এড়াতে। বাড়ির শৌখিন জিনিস অতিরিক্ত দামে কেনার চেয়ে ডিসকাউন্টে কেনা লাভজনক।।গৃহিণীরা অনেক সময় তার থেকেও বেশি হিসাবী হয়ে বাড়িতেই তৈরি করে ফেলে তার মনের মতো সাজসরঞ্জাম  তারই বাড়ির অব্যবহৃত জিনিস দিয়ে।

গ্রোসারি

গৃহিনীরা গ্রোসারির ব্যাপারে হয় খুবই নিয়ন্ত্রিত ।কখন কোথায় কোন আউটলেটে কীসে ছাড় দিচ্ছে  সব থাকে তাদের নখদর্পণে । এমনিক  তারা তাদের  ইমেল আইডি দিয়ে রেজিষ্ট্রেশন  ও করিয়ে রাখে। গৃহিনীরা বেছে নেয় অনেক সময় অনলাইন  পেমেন্টকেও । যেহেতু  ক্যাশব্যাক  দেয় অনেকসময়  এই ধরনের পেমেন্টে পরিবারের  লোকজনদের পছন্দের খাবার  বানিয়ে ফেলে তারা বাড়িতেই।

স্বাস্থ্য 

পরিবারের  লোকেরা সুস্বাস্থ্যের অধিকারী  হলেও বাড়ির খরচা বেচে যায় অনেক টাই। তাই তাদের নজর থাকে কড়া বাড়ির অনেক সদস্য বিশেষ করে ক্ষুদেরা চেয়ে থাকে তাদের দরকারের অতিরিক্ত জিনিস যা তাদের আদৌ দরকার নয়। গৃহিনীরা তাদের সামলায় দক্ষতার সাথে কড়া হাতে ।পুরোনো  জিনিস কে নতুনভাবে উপস্থিত করে পরিবারের লোকের কাছে।

বেড়ানো

পরিবারের  লোকসংখ্যা কম হলে গাড়ি হতে হবে ছোটো , গৃহিনীর থাকে কড়া নির্দেশ। এতে মেনটেনান্স খরচা যেমন বাঁচে, তেলও পোড়ে কম। এখন আবার  কিনছে সব ব্যাটারি  চালিত গাড়ি যার দামও কম জ্বালানি  খরচাও কম।  বেড়াতে গেলে গৃহিনীরা বাড়ি থেকে নিয়ে যায় কিছু পরিমাণ খাবার যা তাদের খরচা সাশ্রয়  করে কিছুটা ।

লক্ষ্যের সাথে সাশ্রয় 

পরিবারের  লোকদের যেন একটা নির্দিষ্ট  লক্ষ্য  থাকে তাদের  আয় অনুযায়ী  সেদিকে থাকে তীক্ষ্ণ  দৃষ্টি। একটি নির্দিষ্ট লক্ষ্য থাকলে সদস্যরা হয়ে  ওঠে হিসাবি। আয় অনুযায়ী পরিকল্পনা  হলে  হলে লক্ষ্য পুরণ হয় তাড়াতাড়ি ।

স্বল্প বিলাসিতা

বাড়ির লোক যাতে অপ্রয়োজনীয়  বিলাসিতা  দেখাতে  গিয়ে অতিরিক্ত  খরচ না করে ফেলে সেদিকে কর্ত্রীর সর্তকতা  থাকে সবসময়। রেস্তোরার  খাবারের বদলে সে বাড়িতেই  তৈরি মনপসন্দ চাইনিজ কন্টিনেন্টাল ।সবসময় ব্রান্ডেড জামার বদলে সে তুলে দেয়  নিত্যনতুন  জিনিস  যা দেখতেও সুন্দর বাজেটও থাকে সাধ্যের মধ্যে। গৃহিনীরা মাঝেমাঝে বাচ্চার প্রতি বেশি গুরুত্ব দিয়ে কিছু ব্যয় কমায়।বাচ্চার প্রত্যহ টিফিনে দোকান থেকে কেনা কেক বিস্কুট পাউরুটি জ্যাম না দিয়ে বাড়িতে থাকা খাদ্যসামগ্রী দিয়ে বানিয়ে দেয়।বাচ্চার বায়নাকে বিশেষ গুরুত্ব না দিয়ে বিলাসিতা কমায়।ফলে পরিবারের সমতা বজায় রাখে।প্রতিবছর নতুন ক্লাস এ বইয়ের তালিকায় সব বই নতুন না কিনে কিছু পুরানো বই আগের বছরের ছাত্রের কাছ থেকে সংগ্রহ করে দেয়। টিউশনে বাড়তি টাকা খরচ না করে নিজে পড়নোর কায়দাকানুন জেনে পড়ায়,ফলে সেখানেও সাশ্রয়। বাচ্চাদের নিত্যনতুন আর্ট ক্লাসে ভর্তি না করে অনলাইন এর সাহায্যে নিজে শেখায়।

উপরে লেখা প্রত্যেকটি পয়েন্টই মুল্যবান এবং কার্যকরী। এইসমস্ত পয়েন্টগুলো স্টেপ বাই স্টেপ মেনে চললে আপনিও আপনার পরিবারের আকাশছোঁয়া খরচকে মুঠোবন্দি করে ফেলবেন।