শরিয়াহ সম্মত ওয়েব পরিবেশ. আরওসন্ধানকরুন

কোষ্ঠকাঠিন্য, দাঁতের ব্যাথা সারাতে প্রতিদিন অ্যালোভেরা জ্যুস

aloevera juice
ID 148582737 © Emily Pan | Dreamstime.com

অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারীর গুণাগুণ বলে শেষ করা যায় না। এই সুপ্রাচীন ঔষধী বহু ক্ষেত্রে উপযোগী প্রমাণিত হয়েছে। অ্যালোভেরা সেবনে হজমের সমস্যা, ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপ, ত্বকের সমস্যা এমনকি স্তন ক্যানসারও নিরাময় হতে পারে।

কোষ্ঠকাঠিন্যে অ্যালোভেরা সেবন করলে ভালো ফল পাওয়া যায়। এক্ষেত্রে প্রতিদিন সকালে অ্যালোভেরা জ্যুস বা জেল পান করতে হয়।

প্রাকৃতিক ভেষজ ওষুধ হিসেবে অ্যলোভেরা সবচেয়ে পরিচিত। এর ব্যবহার প্রচুর এবং তার সাথে উপকারিতাও। অন্যান্য সব গুণ নিমেষে রোগ থেকে মুক্তি দিতে সক্ষম। এতে রয়েছে সোডিয়াম, ক্যালসিয়াম,পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ফলিক অ্যাসিড, অ্যামিনো অ্যাসিড, ভিটামিন -A,B-6,B-2,ইত্যাদি।

ডায়াবেটিস এর মতো কঠিন রোগ থেকে মুক্তি দেয় ।অ্যলোভেরা রস নিয়মিত খেতে পারলে রক্তে গ্লুকোজ এর পরিমাণ কমিয়ে দেয় এবং ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ এ রাখে।

হজম রক্ষাতেও এই অ্যালোভেরা জেল। এতে থাকা অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি উপাদান পাকস্থলি ঠান্ডা রাখে ও হজম এ সাহায্য করে। প্রতিদিন সকালে খালিপেটে গুড়ের সরবতের সাথে অথবা এক গ্লাস জলের সাথে মিশিয়ে খেলে খুব  সহজেই হজম ক্ষমতা বেড়ে যাবে।

এছাড়াও এই উপাদানটির জন্য শরীরের মেদ ঝরিয়ে দেয়। ফলে কোনো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া ছাড়াই ওজন কমে যায়।

ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরার জুড়ি মেলা ভার। ত্বকের দাগ,ব্রন,চুলকানি সমস্ত কিছুতে অ্যালোভেরা জেল দারুণ কাজে লাগে। ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়াতেও কার্যকর এই জেল। অ্যালোভেরা খেলে ভিতর থেকে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়তে থাকে।

চুলের যত্নেও এই অ্যালোভেরা জেল খুবই কাজে লাগে। চুলের শুষ্কতা দূর করে চুলকে পুষ্টি প্রদান করে। ফলে মজবুত ও উজ্জ্বল চুল পাওয়া যায়।

অ্যালোভেরা জুস খাওয়ার ফলে দাঁতের ব্যথা, মাড়ি ফোলা, কোনোকিছুই হয় না। এছাড়াও হার্টকে ভালো রাখতেও ভূমিকা রাখে। শরীর থেকে দূষিত রক্ত বের করে দেয়। কোলস্টেরল এর পরিমান কমায়।

উচ্চ রক্তচাপ সহজেই নিয়ন্ত্রণ করে।

মাংসপেশী ও জয়েন্টে ব্যাথা হলে অ্যলোভেরা খান,  নিমেষে ব্যথা দূর করবে।

অ্যালোভেরার মতো একটি অসীম গুণসম্পন্ন ভেষজ ঔষধী প্রত্যেকের বাড়িতেই থাকা উচিত। এই বাহারি গড়ন ঘরের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধিতেও সাহায্য করে আবার যখন তখন একটা পাতা ভেঙে নিয়ে ব্যবহার করাও যায়।

কিছুবলারথাকলে

যোগাযোগকরুন