গায়ের কাছে সুন্দরী তরুণী, তার পরেই হাপিস মোবাইল-টাকা! গোয়েন্দাদের জালে তরুণ দম্পতি

জীবন Tamalika Basu ৩০-ডিসে.-২০১৯
ID 142115605 © Weerawad Ruangjaroon | Dreamstime.com

কলকাতা : জালে ‘বান্টি-বাবলি’। উৎসবের ভিড়ে দর্শক হয়ে মিশে যেতেন এই জুড়ি। তার পরে সুযোগ বুঝে পকেট-কাটা। দীর্ঘদিন ধরে নির্বিঘ্নে পকেট কাটার কাজ করে এলেও, সোমবার শেষ রক্ষা হল না। আলিপুর চিড়িয়াখানায় বমাল ধরা পড়লেন যাদবপুরের এই ‘বান্টি-বাবলি’অভিষেক-রোশনি।

কলকাতা গোয়েন্দা পুলিশের ওয়াচ শাখার দাবি, কলকাতার বিভিন্ন প্রান্তে, বাজার-শপিং মল বা মেলার মাঠে এঁরা তক্কে তক্কে থাকতেন। বছর কুড়ির অভিষেক দত্ত এবং রোশনি পান্ডে— লোকের পকেট কাটাই পেশা। এক গোয়েন্দা আধিকারিক বলেন, ‘‘ওই দম্পতিকে দেখলে পকেটমার মনে হবে না। ভাল পোশাক। সুন্দরআদব কায়দা। কিন্তু, কখন যে আপনার গায়ের কাছে এসে ভিড়ের সুযোগে টাকার ব্যাগ বা মোবাইল নিয়ে চম্পট দেবে তা টেরও পাবেন না।” এক তদন্তকারীর ইঙ্গিত, মূল অপারেশন চালাতেন ওই তরুণী। রীতিমতো আকর্ষনীয় ওই তরুণী ভিড়ের মধ্যে কারও গায়ের কাছে দাঁড়িয়ে থাকলেও কেউ সন্দেহ করত না। সেই সুযোগেই হাত সাফাই করে অভিষেকের হাতে চোরাই মাল পাচার করে দিতেন রোশনি।