চিনা ভাইরাসে আতঙ্কিত ভারত-বাংলাদেশ

Tamalika Basu ২১-জানু.-২০২০
China SARS virus
ID 55610637 © Jarun011 | Dreamstime.com

ঢাকা ও দিল্লি : চিনা ভাইরাস  নিয়ে এ বার আতঙ্ক ছড়াল বাংলাদেশে। সে দেশে এখনও এই রোগে আক্রান্তের কোনও ঘটনা সামনে না এলেও কোনও ঝুঁকি নিতে রাজি নয় সরকার। বাংলাদেশে তিনটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর আছে। প্রতি বিমানবন্দরে সতর্কতামূলক সমস্ত পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সরকারের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একই ধরনের সতর্কতা জারি হয়েছে ভারতীয় বিমানবন্দরগুলিতে। বিদেশ থেকে মূলত দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশগুলি থেকে আসা যাত্রীদের ভালো করে স্বাস্থ্য পরীক্ষার ব্যবস্থা করার বিষয়ে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক থেকে নির্দেশ পাঠানো হয়েছে।

চিন থেকে বাংলাদেশে সরাসরি যে ফ্লাইটগুলো এসেছে সেসব ফ্লাইটের যাত্রীদের মধ্যে সিভিয়ার অ্যাকুইট রেসপিরেটরি সিনড্রোম (সার্স) ভাইরাসের লক্ষণ পাওয়া যায়নি। আজ মঙ্গলবার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানিয়েছে। চিনা ভাইরাস যাতে ছড়িয়ে পড়তে না পারে, সে জন্য গতকাল সোমবার থেকে এই বিমানবন্দরে বিশেষ সতর্ক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

ঢাকা থেকে চিনে প্রতিদিন ছয়টি ফ্লাইট যাওয়া-আসা করে। চায়না সাউদার্ন এয়ারলাইন, চায়না ইস্টার্ন ও ইউএস-বাংলা এসব সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনা করে। এসব ফ্লাইটে চিন থেকে আসা যাত্রীদের পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে।

অন্যদিকে, চিন থেকে আগত বিমান যাত্রীদের জন্য থার্মাল স্ক্রিনিংয়ের বন্দোবস্ত করেছে ভারতের বিমানবন্দর। অভিবাসন সংক্রান্ত চত্বর পর্যন্ত পৌঁছনোর আগেই থার্মাল স্ক্রিনিংয়ের মধ্যে দিয়ে তাঁদের যেতে হবে বলে জানিয়েছে এয়ারপোর্ট হেলথ অর্গানাজেশন (এপিএইচও)। যদি কারও মধ্যে রোগের উপসর্গ মেলে, সেক্ষেত্রে তাঁকে আইসোলেশন হাসপাতালে পাঠানো হবে। চিন-সফরে যাওয়া ভারতীয়দের জন্য নির্দেশিকাও জারি করেছে সরকার।