চিন থেকে আগতদের ভিসা দেওয়া বন্ধ করল ভারত-বাংলাদেশ

বিশ্ব Tamalika Basu ০২-ফেব্রু.-২০২০
chinese
ID 170433279 © Marcio Waismann | Dreamstime.com

চিনে বসবাসকারী বিদেশি এবং চিনের নাগরিকদের জন্য ভিসা বন্ধ করল ভারত-বাংলাদেশ। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন আজ রবিবার সকালে তাঁর দপ্তরে সাংবাদিকদের বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের পরিপ্রেক্ষিতে সে দেশের নাগরিকদের জন্য অন অ্যারাইভাল (আগমনী ভিসা) আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে। করোনাভাইরাস যাতে ভারতে ছড়িয়ে না পড়ে, তার জন্যই  একই পদক্ষেপ  করেছে ভারত।

বেজিংয়ে অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাস রবিবার টুইট করে জানিয়েছে, ‘বর্তমান পরিস্থিতির কারণে চিনের নাগরিকদের এবং সে দেশে বসবাসকারী বিদেশিদের সাময়িক ভাবে ভারতে আসার ই-ভিসা দেওয়া বন্ধ করা হল।’ যাঁরা ইতিমধ্যেই ই-ভিসা পেয়েছেন, তাঁদের ভিসাও আর কার্যকর থাকবে না। ভারতীয় দূতাবাসের তরফে এও জানানো হয়েছে, যাঁদের ভারতে আসাটা অত্যন্ত জরুরি এই সময়সীমার মধ্যে, তাঁরা যেন অবশ্যই বেজিং, সাংহাই বা গুয়ানহুতে অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন। এই শহরগুলিতে অবস্থিত যে কোনও ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্রের সঙ্গে যোগাযোগ করলেও চলবে।

অন্যদিকে, শনিবার বিকেল পাঁচটায় ৩১৬ জন বাংলাদেশিকে নিয়ে চিন থেকে দেশে ফেরে বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ উড়োজাহাজ। গতকাল বেলা ১১টা ৫৩ মিনিটে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উড়োজাহাজটি অবতরণ করে। পরে সেখান থেকে বাংলাদেশি লোকজনকে বাসে করে সরাসরি আশকোনা হজ ক্যাম্পে নেওয়া হয়। বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ একটি উড়োজাহাজ চীনে বাংলাদেশিদের আনতে যায় । সম্প্রতি ভারত দুটো বিমানে মোট ৬৫৪ জন ভারতীয়কে চিন থেকে দেশে ফিরিয়ে এনেছে। তার মধ্যে ছ’জন মলদ্বীপের লোকও রয়েছে। ঢাকায় এদিন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে যেসব চিনা নাগরিক কর্মরত আছেন, তারা যেন অন্তত একটি মাস চিনে না যান এবং নিয়ম মেনে চলেন। অপর দিকে যারা চিন থেকে অন অ্যারাইভাল ভিসা সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে। তারপরও যদি তারা আসতে চান তাহলে ভিসা নিয়ে আসতে হবে। তবে, ভিসা ফর্মের সঙ্গে একটি মেডিক্যাল সার্টিফিকেটও দিতে হবে।