বাংলাদেশের দুই রেসিপি: ইফতার স্পেশ্যাল

ইফতার মেন্যুতে রাখতে পারেন সুস্বাদু জর্দা পোলাও। মিষ্টি এই খাবারটি তৈরিও করতে পারবেন ঝটপট।

উপকরণঃ- বাসমতী চাল, চিনি, ছোট এলাচ (১ টা), বড় এলাচ (১ টা), গোলাপ জল, খোয়াক্ষীর, ড্রাই ফ্রুটস (কাজুবাদাম, কিশমিশ, মোরব্বা, শুকনো খেজুর, চেরি, পেস্তা), জাফরান ও জাফরানি রঙ।

প্রণালীঃ- ছোট ও বড় এলাচের দানা দিয়ে জল গরম করে তাতে চাল দিন। চাল ৮০ শতাংশ হয়ে এলে তাতে জাফরান ও জাফরানি রঙ দিন। এরপর চাল ছেঁকে জল ঝরিয়ে নিন। অন্য পাত্রে চিনির জল (সিরা) করুন, তাতে সেদ্ধ করা রাইস দিন ও সমস্ত ড্রাই ফ্রুটস দিয়ে দিন। সিরা চাল সম্পূর্ণভাবে তেনে নিলে গোলাপ জল ছিটিয়ে ও খোয়াক্ষীর ওপর থেকে দিয়ে দিন।

pulao

চিংড়ি মাছ যেভাবেই খাওয়া যায় সেভাবেই ভালো লাগে। আর ভর্তা তা যে জিনিসেরই হোক, খেতে মুখরোচক হয়। তাই যখন চিংড়ি মাছের ভর্তা হয়, তা যেন সোনায় সোহাগা। এবার দেখে নেওয়া যাক চিংড়ি মাছের মজাদার একটা ভর্তার রেসিপি।

উপকরণঃ- চিংড়িমাছ (১ কাপ), পেঁয়াজকুচি (আধা কাপ ), রসুন (৪ কোয়া ), কাঁচালঙ্কা (৮টা ), সয়াবিন তেল (১ টেবল চামচ) , ধনেপাতা, নুন (স্বাদ অনুযায়ী)।

প্রণালীঃ- কড়াইতে তেল দিয়ে চিংড়িমাছ, পেঁয়াজকুচি, কাঁচালঙ্কা, রসুন, নুন সব দিয়ে ভেজে নিন। ভাজা হলে সব উপকরণ ধনে পাতা-সহ মিহি করে শিলে বা মিক্সিতে বেটে নিন। ব্যস, রেডি চিংড়ির ভর্তা। গরম গরম ভাতের সঙ্গে দারুণ জমে যাবে।

shrimp mashed