বাঘের শরীরেও করোনা ভাইরাসের প্রমাণ মিলল

বিশ্ব Tamalika Basu ০৬-এপ্রিল-২০২০
royal bengal tiger
ID 117297682 © Fotokon | Dreamstime.com

করোনা ভাইরাসের থাবা নিউ ইয়র্ক শহরে যে ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে, গোটা বিশ্ব তার সাক্ষী। এবার শুধু মানুষ নয়, প্রাণীর শরীরেও নতুন এই ভাইরাসের অস্তিত্বের প্রমাণ পাওয়া গেল। শহরের ব্রংক্স চিড়িয়াখানায় এক বাঘের শরীর পরীক্ষা করে করোনা পাওয়া গেছে। যুক্তরাষ্ট্রে এই প্রথম কোনো প্রাণী এবং গোটা বিশ্বে এই প্রথম কোনো বাঘের শরীরে করোনা ধরা পড়েছে।

দেখা যাচ্ছে, প্রাণীদের ক্ষেত্রেও অত্যন্ত ছোঁয়াচে এই রোগ। নাদিয়া নামের বাঘটির আশেপাশে আরও ছ’টি বাঘ ও সিংহ অসুস্থ হয়ে পড়েছে। তবে একমাত্র নাদিয়াকেই অ্যানেস্থেশিয়ার মাধ্যমে ঘুম পাড়িয়ে পরীক্ষা করা সম্ভব হয়েছে। সম্ভবত চিড়িয়াখানার এক কর্মীর কাছ থেকেই নাদিয়ার শরীরে করোনা ভাইরাস প্রবেশ করেছে। সেই ব্যক্তির শরীরে অবশ্য এখনো করোনার কোনো লক্ষণ দেখা যায় নি। ২৭শে মার্চ থেকেই নাদিয়ার শরীরে করোনার লক্ষণ দেখা যাচ্ছিল। তবে চিড়িয়াখানার সূত্র অনুযায়ী আক্রান্ত সব প্রাণী ধীরে ধীরে সেরে উঠছে। উল্লেখ্য, ১৬ই মার্চ থেকেই এই চিড়িয়াখানা বন্ধ রাখা হয়েছে। এবার থেকে চিড়িয়াখানার সব কর্মী সংক্রমণ এড়াতে বিশেষ পোশাক পরে প্রাণীর দেখাশোনা করবে।

ব্রংক্স চিড়িয়াখানার প্রধান জিম ব্রেহেনি বলেন, পরীক্ষার ফলাফল প্রথমে তিনি বিশ্বাস করতে পারেন নি। তবে তার মতে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ সম্পর্কে যে কোনো তথ্য ও জ্ঞান এই বিপর্যয় মোকাবিলার ক্ষেত্রে সহায়ক হবে। বিশেষ করে বিভিন্ন প্রাণীর শরীরে কোভিড-১৯ ভাইরাসের প্রতিক্রিয়া জানা অত্যন্ত প্রয়োজনীয় বলে তিনি মনে করেন।

প্রশ্ন হলো, এমন ঘটনার পরিণাম কী হতে চলেছে? মানুষের মধ্যে সংক্রমণের পাশাপাশি প্রাণীর শরীরেও একই প্রক্রিয়া দেখা গেলে করোনাভাইরাস কি আরও দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে? অর্থাৎ আক্রান্ত প্রাণী থেকেও মানুষের শরীরে করোনা প্রবেশ করতে পারে? মার্কিন কৃষি মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ড. জেন রুনি বলেছেন, প্রাণীর মাধ্যমে কোভিড-১৯ মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়তে পারে, এই মুহূর্তে এমন কোনো প্রমাণ নেই। ব্রংক্স চিড়িয়াখানার সব প্রাণী ও কর্মীদের ঢালাও পরীক্ষার কোনো নির্দেশও দেয়া হয় নি। মার্কিন কৃষি মন্ত্রণালয় গোটা দেশে যত প্রাণীর শরীর পরীক্ষা করেছে, তার মধ্যে একমাত্র নাদিয়ার শরীরে কোভিড-১৯ পাওয়া গেছে।