শরিয়াহ সম্মত ওয়েব পরিবেশ. আরওসন্ধানকরুন

বাড়বে বাণিজ্য, ২০২১ সালেই শুরু আখাউড়া-আগরতলা ট্রেন চলাচল

২০১৭ সালের অক্টোবরে ত্রিপুরার আগরতলা এবং বাংলাদেশের আখাউড়া রেলপথ নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছিল। বলা হয়েছিল ২০১৯ সালেই হুইসেল বাজবে আগরতলা-আখাউড়া রেলপথে। কিন্তু নানা জটিলতায় তা পিছিয়ে গিয়েছে একবছর। এই রেলপথ নির্মাণে খরচ হয়েছে ৯৮০ কোটি টাকা। এর মধ্যে বাংলাদেশ অংশের ১০ কিলোমিটারের জন্য খরচ হয়েছে প্রায় ৪৭৮ কোটি টাকা এবং ভারতের ৫ কিলোমিটার অংশের জন্য ৫৮০ কোটি টাকা।

ত্রিপুরার নিশ্চিন্তপুর হবে দুই দেশের সীমান্ত স্টেশন। সীমান্ত থেকে আগরতলা রেলস্টেশন পর্যন্ত হবে ৫ কিলোমিটার। ত্রিপুরার অংশে এই রেলপথ তৈরি করছে ভারতীয় রেল মন্ত্রকের অধীনস্থ নির্মাণ সংস্থা ইন্ডিয়ান রেলওয়ে কনস্ট্রাকশন কোম্পানি লিমিটেড (ইরকন)। অন্যদিকে বাংলাদেশ অংশে রেলপথ নির্মাণ করছে বাংলাদেশি স্থানীয় সংস্থা।

এদিকে বৃহস্পতিবার ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাস আখাউড়া-আগরতলা নির্মিত রেলপথ পরিদর্শনে এসে বলেন, ২০২১ সালেই এই রেলপথ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হবে। এই রেলপথটি দু’দেশের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এদিন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া-আগরতলা রেলপথের নির্মাণ কাজ পরিদর্শনে গিয়ে মনিয়ন্দ ইউনিয়নের শিবনগর এলাকায় সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। ভারতীয় হাইকমিশনারের কথায়, বাংলাদেশের সঙ্গে উত্তর-পূর্ব ভারতের বাণিজ্যিক যোগাযোগ এ পথের মাধ্যমেই হবে। তাছাড়া কলকাতার সাথে যোগাযোগও এখান থেকেই হতে পারে।