SalamWebToday নিউজলেটার
Sign up to get weekly SalamWebToday articles!
আমরা দুঃখিত কোনো কারণে ত্রুটি দেখা গিয়েছে:
সম্মতি জানানোর অর্থ, আপনি Salamweb-এর শর্তাবলী এবং গোপনীয়তার নীতি মেনে নিচ্ছেন
নিউজলেটার শিল্প

মন সর্বদা চঞ্চল? ব্রেন ওয়েভ-এ উপায় খুঁজলেন বিজ্ঞানীরা

আবিষ্কার ১৫ ফেব্রু. ২০২১
জ্ঞান-বিজ্ঞান
ব্রেন ওয়েভ
© Nataliia Mysik | Dreamstime.com

কোনোকাজে মনোসংযোগ করতে গেলে হামেশাই দেখি মন সেই কাজ বাদ দিয়ে সিনেমা-সিরিয়াল, খেলার মাঠ, ঘুরতে যাওয়া এমনকি রাতের খাবার মেনু – প্রায় সবকিছুতে ঘুরে বেড়ায়। কোনো নির্দিষ্ট কাজ মন দিয়ে করতে গেলে এই সমস্যা আমাদের প্রায় সবার হয়। UC Berkley এর উদ্যোগে শুরু হওয়া এক গবেষণাতে বিজ্ঞানীরা সম্প্রতি দেখালেন আমাদের মস্তিষ্কের তরঙ্গ বা ব্রেন ওয়েভ ব্যবহার করে ওই চঞ্চল মনের গতিপ্রকৃতি জানা সম্ভব। UC Berkley, University of Calgary এবং University of Virginia থেকে গবেষণায় অংশ নেয়া বিজ্ঞানীদের এই নতুন কাজ প্রকাশিত হল Proceedings of the National Academy of Sciences জার্নালের পাতায়।

কীভাবে এই ব্রেন ওয়েভ কাজ করে?

আমাদের মস্তিস্ক বা ব্রেনের অনেকগুলি ভাগ আছে যারা কিছু নির্দিষ্ট কাজ করে থাকে। ব্রেনের সেই সমস্ত অংশই যখন কাজ সম্পন্ন করে তখন তাদের নির্দেশ বিদ্যুৎ তরঙ্গের আকারে Electroencephalogram (EEG) নামক যন্ত্রের সাহায্যে ধরা যায়। উদাহরণ হিসেবে, আমাদের মস্তিষ্কের দুটো গুরুত্বপূর্ণ অংশ হল Prefrontal Cortexএবং Parietal Cortex। Prefrontal Cortex সকল কাজের সিদ্ধান্ত নেয়ার মত দায়িত্ত্ব পালন করে এবং Parietal Cortex দেখা, শোনা ইত্যাদি কাজ গুলো করে থাকে। এরা যখন কোনো কাজ করে, নির্দিষ্ট তরঙ্গ দৈর্ঘের ব্রেন ওয়েভ বের হয় এবং EEG এর একপ্রান্তে থাকা তড়িৎদ্বার মস্তিষ্কের বিভিন্ন প্রান্তে লাগিয়ে সেখানকার সেই ব্রেন ওয়েভ মাপা সম্ভব।

বিজ্ঞানীরা কী জানতে পেলেন?

দু’ডজনের বেশি মানুষের উপর পরীক্ষা করা হয়েছে এই বিষয়ে। দেখা গেছে তারা কোনো কাজে মনোসংযোগ করতে না পারলে এবং মন চঞ্চল হলে Prefrontal Cortex এ একটু ধীর লয়ের শক্তিশালী “Alpha” ব্রেন ওয়েভ বেশি পরিমাণে উৎপন্ন হচ্ছে। তার সাথে Parietal Cortex এ “P3” নামে খুব দুর্বল ব্রেন ওয়েভ তৈরী হয়। UC Berkleyএর Psychology and Neuroscience বিভাগের প্রফেসর রবার্ট নাইট জানালেন,” এই প্রথম বারের মত আমরা আমাদের মনের ভেতরে চলা চিন্তাভাবনার আলাদা আলাদা স্নায়ু-শারীরবৃত্তীয় প্রমান পেলাম। এগুলো আমাদের স্বাস্থ্যকর এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি কারী চিন্তাভাবনার মধ্যে তফাৎ করে সেগুলো বুঝতে সাহায্য করবে। ”

৩৯ জন পূর্ণবয়স্ক মানুষের উপর একটি পরীক্ষা চালানো হয় যেখানে তাদের চিন্তাভাবনাকে চারটি গোত্রে ভাগ করা হয় –

নির্দিষ্ট কাজ সম্বন্ধীয়,

মুক্ত চিন্তা,

ইচ্ছাকৃত ভাবে সীমাবদ্ধ করা এবং

নিজে থেকে সীমাবদ্ধ হওয়া।

একটি নির্দিষ্ট কাজ সম্পন্ন করার পর তাদের ১ থেকে ৭ এর মধ্যে উপরের চারটি বিভাগে নিজেদের মনোবিক্ষেপকে নম্বর দিতে বলা হয়। এরপর তাদের সেই প্রদত্ত নাম্বারের সাথে পরিমাপ করা ব্রেন ওয়েভ মিলিয়ে জানা গেল আসল বিষয়। যখন সেই কাজটি সম্পন্ন করতে তাদের চিন্তাভাবনা মুক্ত ভাবে ঘুরে বেড়ায় বা কাজটি সম্পন্ন করার চেষ্টা করে, তখন Alpha ওয়েভ বেশি পরিমাণে নির্গত হয় এবং P3 ওয়েভ কমে যায়। Alpha ওয়েভ বেড়ে যাওয়ার অর্থ ব্রেনের যে অংশে সৃষ্টিশীল চিন্তাভাবনা হয় সেই Prefrontal Cortexএর কাজ বেড়ে যাওয়া।

UC Berkley এর গবেষক এলিসন গোপনিক তাই বলেছেন,”আমাদের গবেষণাপত্র তাই জানাচ্ছে যে অস্থিরমতি বা চঞ্চল মন আসলে আমাদের চেতনার একটি ইতিবাচক বৈশিষ্ট্য। ”

ভবিষ্যতে হয়ত এই গবেষণার ফলেই বিভিন্ন মানসিক রোগীদের চিন্তাভাবনার সুলুকসন্ধান করে সেগুলো নিয়ন্ত্রণ করে তাদের সুস্থ করা যাবে। সুস্থ এবং শৃঙ্খলাবদ্ধ চিন্তাভাবনা তৈরির ক্ষেত্রে এই ব্রেন ওয়েভ প্রযুক্তি একদিন হয়ত ভীষণ গুরুত্ত্বপূর্ন হয়ে উঠবে।