মাথাব্যথায় কাজ দেয় পুদিনাপাতা

mint leaves
ID 123413016 © Mario Bonanno | Dreamstime.com

পুদিনাপাতার মতো এত সহজলভ্য ঘরোয়া সর্বগুণ সম্পন্ন ওষুধ বোধ হয় আর নেই। প্রাচীন কাল থেকে আজ অবধি পুদিনার কাজের প্রভাব আমাদের জীবনে বিস্তার। কাঁচা থেকে রান্নাতে যেকোনো উপায়ে পুদিনা খাওয়া যায়।

শ্বাসকষ্ট

শ্বাসকষ্টে ভোগা রুগিদের কাছে সর্দি অত্যন্ত যন্ত্রণার বিষয়। প্রাণ তাদের ওষ্ঠাগত হয়ে যায় প্রতিটি মূহুর্তে। আমরা  বেশিরভাগ সময়ই চেষ্টা করি ঠান্ডা লাগা থেকে নিজেকে দূরে রাখতে, শ্বাসকষ্ট থাকা মানুষরা যদিও এই ব্যাপারে একটু অতিরিক্ত সাবধানী হন। পুদিনা শ্বাসকষ্টের মোক্ষম ওষুধ। পুদিনা নিজে ঠান্ডা হওয়ায় শ্বাসনালীকে পরিষ্কার রাখে।এই অসুখে ভোগা মানুষরা প্রায় প্রতিদিনই পুদিনাপাতা খেতে পারেন।

মাথাব্যথায় পুদিনা

মাথাব্যথাতে পুদিনার ভূমিকা অত্যন্ত কার্যকরী । মাথাব্যাথা আমাদের কাছে অত্যন্ত কষ্টের বিষয়, আমাদের মধ্যে অনেকে আছে যাদের সাথে মাথাব্যাথা নিত্যদিনের সঙ্গী।এই অসুখটির কারণ অনেক রকম হতে পারে যেমন,মাইগ্রেন, ঠান্ডা লাগার ধাত। কিন্তু আমাদের যাদের মাথাব্যথা হয় প্রায় প্রতিদিন আমরা জানি এটা কতটা  যন্ত্রণার। এর ফলে নিয়মিত কাজগুলো ব্যাহত হয় অনেক সময়।পুদিনাএকটি ঠান্ডা বস্তু হওয়ায় মাথা ঠান্ডা রাখে  যন্ত্রণার থেকে উপশম পাওয়া যায়।

মুখের দুর্গন্ধ দূরীকরণে 

আমাদের মধ্যে অনেকেরই সঠিকভাবে ব্রাশ করার পরও মুখের দুর্গন্ধ দূর হয় না। আমরা বাইরে গিয়ে এই কারণে লোকের সাথে কথা বলতে অনেকসময় লজ্জা পাই , যেহেতু আমরা প্রত্যেকেই চাই বাইরের দুনিয়াতে নিজেকে সুন্দর ভাবে উপস্থাপনা করতে। এই সমস্যার সবথেকে বড়ো সমাধান পুদিনা।পুদিনা মুখের ভেতরে থাকা সব জীবাণুদের মেরে ফেলে দুর্গন্ধ দূর করে।কাঁচা পুদিনা পাতা আমরা চিবিয়ে খেতে পারি সরাসরি। বাজারে অনেক পুদিনা চুইংগাম পাওয়া যায় যা কিনে চিবানো যেতে পারে।

পেটের সমস্যা

আমাদের নিত্যদিনের সঙ্গী প্রত্যেকের পেটের সমস্যা। অনিয়মিত জীবনযাত্রায়,খাবারের গণ্ডগোল এসব কারণে আমাদের প্রত্যেককে এই সমস্যা কাবু করে।এই সমস্যা থেকে আমরা অনেকে প্রচুর অ্যান্টাসিড খাই যা আমাদের শরীরে খারাপ প্রভাব ফেলে একটা সময় পরে। এই কারণ ঘরে থাকা পুদিনা খান নিয়ম করে কারণ এতে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ফাইবোনিউট্রয়েন্ট অ্যাসিডিটির সমস্যা দূর করে দেয়। গ্যাস,বদহজম থেকে তৈরি পেটের সমস্যায় পুদিনার চা খান দিনে যেকোনো সময়। এছাড়াও কাঁচা পাতাকে ফুটিয়ে মধু দিয়ে খেতে পারেন অনেক সময়।

ক্যানসার

দূরারোগ্য ক্যানসারের প্রকোপ দিন দিন বেড়েই চলেছে। আমাদের শরীরে ক্যান্সার যাতে বাসা বাঁধতে না পারে তার জন্যে আগে থেকেই বিশেষ ভাবে সতর্ক থাকতে হবে।ক্যানসারের কোশগুলিকে প্রতিরোধ করতে পারে এমন জিনিস গুলোকে আমাদের শনাক্ত করে তার ব্যবহার বাড়াতে হবে।যেমন পুদিনাতে থাকা পেরিলেল অ্যালকোহল যা ফাইবোনিউট্রয়েন্টের উপাদান বিজ্ঞানীদের দাবী ক্যান্সার প্রতিরোধী বস্তু এটি। তাই পুদিনাকে আপনি ক্যান্সারের প্রতিরোধী হিসাবে ব্যবহার করুন।

এছাড়াও ত্বকের সমস্যায় পুদিনা অত্যন্ত কার্যকরী। ত্বক জ্বালা করলে পুদিনা পাতা বেটে মুখে লাগান তারপর ঠান্ডা জলে দশ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন এতে সানবার্ন দূর হবে যেমন তেমন জ্বালাও কমবে।আবার ব্রণর সমস্যাতেও পুদিনা ব্যাবহার করতে পারেন , রোজ রাতে পুদিনার রস মুখে লাগান পারলে সারারাত রাখতে পারেন না হলে দু তিন ঘন্টা রেখে ধুয়ে ফেলুন, একমাসের মধ্যে ব্রণর দাগ মিলিয়ে যাবে। শরীর ঠান্ডা রাখতে গরমে স্নানের আগে কয়েকটা পুদিনা পাতা ফেলে দিন এতে শরীরও ঠান্ডা থাকবে মনও সতেজ থাকবে। পুদিনার একাধিক গুণের আর একটি হলো উকুনের সমস্যা দূর করে। পুদিনা বেটে মাথায় রসটা লাগিয়ে নিন তারপর একটা কাপড় জরিয়ে রাখুন। কিছুটা সময় পর শ্যাম্পু করে নিলেই  উকুনের সমস্যা দূর হতে শুরু করবে। বিভিন্ন ব্যাথাতেও পুদিনার ভূমিকা অনস্বীকার্য, জয়েন্টর ব্যাথাতে পুদিনা বেটে লাগাতে পারেন এতে ব্যাথার  উপশম হয়।