মুক্তিযুদ্ধে শহীদ ভারতীয় সেনাদের সম্মান, বিস্মৃত হত সন্ন্যাসিকুল

Uncategorized Tamalika Basu ০৬-ডিসে.-২০১৯

ঢাকা: একাত্তর সালে মুক্তিযুদ্ধে শহিদ ৩৮০ জন ভারতীয় সেনাকে সম্মান জানাবে বাংলাদেশ। এমনটাই জানা গিয়েছে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে। বাংলাদেশকে ভারতের স্বীকৃতির ৪৮তম বার্ষিকী উপলক্ষ্যে জানান বিদেশমন্ত্রী কে আব্দুল মোমেন। এ দিন বিদেশমন্ত্রী জানান, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের আত্মত্যাগের স্বীকৃতিস্বরূপ প্রধানমন্ত্রী ২০১৭ সালে মুক্তিযুদ্ধে শহিদ ভারতীয় অনেক সেনা পরিবারের সদস্যদের সম্মান প্রদান করেছেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর কলকাতার ফোর্ট উইলিয়ামে শহিদ ১২ ভারতীয় সশস্ত্রবাহিনীর সদস্যের পরিবারের হাতে মুক্তিযুদ্ধ সম্মাননা তুলে দেওয়া হয়। এর পর বাংলাদেশ সরকার ৩৮০ জন শহীদ ভারতীয় সেনা সদস্যের জন্য স্মারক প্রস্তুত করেছে, যা শীঘ্রই ভারতীয় পক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

অন্যদিকে, শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে শ্রী শ্রী রমনা কালীমন্দির ও শ্রীমা আনন্দময়ী আশ্রম- এর ১৯৭১ সালের ক্ষতিগ্রস্ত ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবার পুনর্বাসন কমিটি এক মানববন্ধন করে। মানববন্ধনে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক বিপুল রায় বলেন, “এই ঐতিহ্যবাহী শক্তিতীর্থ প্রায় পাঁচ শতাধিক বছরের প্রাচীন এক সনাতনী ধর্মালয়। ১৯৭১ সালের ২৬ শে মার্চ রাতে শ্রী শ্রী রমনা কালীমন্দির ও শ্রীমা আনন্দময়ী আশ্রমের সেবায়েতসহ প্রায় একশ সন্ন্যাসী, ভক্ত ও সেখানে বসবাসরত সাধারণ মানুষকে হত্যা করা হয়। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান শহীদ পরিবারের উত্তরাধিকারদের প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে দুই হাজার টাকার চেক প্রধানসহ একটি করে প্রসংশাপত্র দেন। কিন্তু এর পরে আর কেউ তাদের খবর রাখেননি। সহায় সম্বলহীন ও আশাহত পরিবারবর্গের মাথা গোঁজার ঠাই নেই, মানবেতর জীবন যাপন করছেন। ২০১৮ সালের ২০ মে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আর্থিক সহায়তা ও রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি চেয়ে আবেদন করলেও এখনও কোন সাড়া পাওয়া যায়নি।”