SalamWebToday নিউজলেটার
Sign up to get weekly SalamWebToday articles!
আমরা দুঃখিত কোনো কারণে ত্রুটি দেখা গিয়েছে:
সম্মতি জানানোর অর্থ, আপনি Salamweb-এর শর্তাবলী এবং গোপনীয়তার নীতি মেনে নিচ্ছেন
নিউজলেটার শিল্প

মোটা হওয়ার রহস্য ঠিক কী? জেনে নিন এই লেখায়!

স্বাস্থ্য ০৯ অক্টো. ২০১৯
মেদ কমান

বেশিরভাগ মানুষই মুটিয়ে যাওয়া নিয়ে দুশ্চিন্তায় থাকেন! শারীরিক কসরতের পাশপাশি বিভিন্ন ডায়েটের মধ্যে ঢুবে থাকেন অনেকেই যেন ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে। কিন্তু ভেবে দেখেছেন কি? মানুষ কেন মোটা হয়? ব্রিটেনের একদল বিজ্ঞানী বলছেন, খাবার বা নিত্যদিনের জীবনধারার চেয়ে শরীরের ওজনের মাত্রা অনেকটাই নির্ভর করে সুনির্দিষ্ট এক ধরনের জ্বীনের ওপর। বিজ্ঞানীরা বলছেন, গবেষণায় হাল্কা-পাতলা দেহের মানুষদের শরীরে তারা “লাকি” এক সেট জীনের উপস্থিতি খুঁজে পেয়েছেন।

শরীরের ওজন বাড়া-কমা নিয়ে গত কয়েক দশকে অনেক গবেষণা হয়েছে। দেখা গেছে, কিছু বিশেষ জ্বীন এবং সেগুলোর পরিবর্তনের কারণে মানুষের ওজন বেড়ে যায়। কিন্তু মোটা হওয়ার কারণ নিয়ে যত গবেষণা হয়েছে, সে তুলনায় কেন কিছু মানুষ অনেক খাওয়া-দাওয়া করে, ঘুমিয়েও হাল্কা-পাতলা রয়ে যায় তা নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা কমই হয়েছে। এই প্রথম ব্রিটেনে হাল্কা-পাতলা থাকার রহস্য ভেদের বড়-সড়সড় চেষ্টা হলো।

১৬০০ হাল্কা-পাতলা কিন্তু পুরোপুরি সুস্থ মানুষের ডিএনএ নমুনার সঙ্গে ২ হাজার মোটা মানুষ এবং ১০ হাজার ৪০০ স্বাভাবিক ওজনের মানুষের ডিএনএ নমুনার তুলনা করা হয়েছে এই গবেষণায়। তাদের নিত্যদিনের জীবন-যাপনও বিবেচনায় নেয়া হয়েছে। পরীক্ষায় দেখা গেছে, যেসব জ্বীনের প্রভাবে মানুষের ওজন বেড়ে যায় হাল্কা-পাতলা মানুষের শরীরে সেসব জ্বীনের সংখ্যা কম। শুধু কমই নয়, সেসব জ্বীনের পরিবর্তনের ধরণও ভিন্ন।

কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সাদাফ ফারুকি, যিনি এই গবেষণার নেতৃত্ব দিয়েছেন, বলেছেন, মানুষের শরীরের ওজন নিয়ে দোষারোপ সবসময় ঠিক নয় কারণ, সেই ওজন বাড়ার পেছনে ব্যক্তির হয়তো কোনো ভূমিকাই নেই।

“এই গবেষণায় প্রথমবারের মত দেখা গেলে যে যেসব জীনের প্রভাবে মানুষ মোটা হয়ে যায়, হাল্কা-পাতলা শরীরের লোকদের শরীরে সেসব জীনের সংখ্যা কম। এটা সবসময় ঠিক নয় যে মোটা মানুষেরা হাল্কা-পাতলা মানুষদের চেয়ে বেহিসাবি বেসামাল জীবন যাপন করে।”

“মানুষের ওজন নিয়ে হুট-হাট করে সমালোচনা করা সহজ, দোষারোপ করা সহজ, কিন্তু বিজ্ঞান বলছে যে ওজনের বিষয়টি খুবই জটিল।”

“যতটা চাই বা ভাবি আমাদের শরীরের ওজনের ওপর আমাদের নিয়ন্ত্রণ তার চেয়ে অনেক কম।”

বিজ্ঞানীরা বলছেন , তাদের এই গবেষণার প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে এই ফলাফল এবং নতুন জ্ঞান কাজে লাগিয়ে মানুষের ওজন কমানোর জন্য কার্যকরী কৌশল ঠিক করা।

এই গবেষণার ওপর মন্তব্য করতে গিয়ে লন্ডনের কিংস কলেজের পুষ্টি বিজ্ঞানের স্বনামধন্য অধ্যাপক টম স্যান্ডারস বলেন, “গুরুত্বপূর্ণ এই গবেষণা নিশ্চিত করছে যে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই অতি মোটা হয়ে যাওয়ার পেছনে জীনের ভূমিকাই মুখ্য।”

কিন্তু তিনি একইসাথে বলেন – অধিকাংশ ক্ষেত্রেই বয়স বাড়ার সাথে মোটা হওয়ার সম্পর্ক রয়েছে, এবং কম চলাফেরা বা শারীরিক পরিশ্রম এবং ক্যালোরি-সমৃদ্ধ খাবারের আধিক্য অবশ্যই সেখানে ভূমিকা রাখে।

Source: The Daily Bangladesh.

Photo: Collected