রাজাকারের তালিকা সংশোধনের নির্দেশ হাসিনার

Uncategorized Tamalika Basu ১৮-ডিসে.-২০১৯

ঢাকা: রাজাকারের তালিকায় কিছু মুক্তিযোদ্ধার নাম উঠে আসায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করে বিষয়টি ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখার আহ্বান জানিয়েছেন। অন্যদিকে, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশ করা রাজাকারের তালিকা আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়য়ের সচিব আরিফ উর রহমান জানান, বিভিন্ন মহল থেকে বিভিন্ন ধরনের অসঙ্গতির অভিযোগ আসায় এটি আপাতত স্থগিত করা হলো।

বুধবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে  দলের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে শেখ  হাসিনা বলেন, ‘এ তালিকা কোনোভাবেই রাজাকারের তালিকা নয়। এটা যাচাই-বাছাই করা হবে। প্রকৃত দোষীদের খুঁজে বের করা হবে, শাস্তি দেওয়া হবে। এখনও মাইন্ডসেটের কিছু সমস্যা আছে। সর্ষের মধ্যে যেমন ভূত থাকে, তেমন কিছু রয়ে গেছে। আমরা সেগুলা ঠিক করে ফেলবো। কোনও মুক্তিযোদ্ধাকে রাজাকার খেতাব দেওয়া হবে না, এটা হতে পারে না—এটা অসম্ভব। অন্তত আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে না।’

তিনি বলেন, ‘যারা ওই সময় জন্ম নেয়নি—এমন অনেকেরও নাম এ তালিকায় ঢুকে গেছে। এটা যারা দেখেছে তাদের মনে খুব কষ্ট লেগেছে, আঘাতও লেগেছে। রাজাকারদের যেটা তালিকা তার আলাদা গেজেট করা আছে। সেটা কিন্তু একেবারে আইনগতভাবে গেজেট করা। মানবতাবিরোধী হিসেবে আমরা যখন বিচার করতে শুরু করি, তখন কিন্তু ওই গেজেট থেকেই তালিকা নিয়ে বিচারকার্য হয়েছে। কাজেই এখানে একটা ভুল বোঝাবুঝির মতো অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে।’ সরকারপ্রধান বলেন, ‘আমি নির্দেশ দিয়েছি, আমি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কেও বলেছি সব ঠিক করতে, সংশোধন করতে।’