শরিয়াহ সম্মত ওয়েব পরিবেশ. আরওসন্ধানকরুন

রাতে ভূমিকম্প মণিপুরে, কম্পন মায়ানমার সীমান্তেও

Tamalika Basu ১৫-ফেব্রু.-২০২০
earthquake

শুক্রবার রাতে কেঁপে উঠল মণিপুর। যদিও ভূমিকম্পের তীব্রতা খুব বেশি ছিল না। রিখটার স্কেলে ৩.৬ কম্পাঙ্কের তীব্রতা ধরা পড়ে। স্থায়িত্ব ছিল মাত্র কয়েক সেকেন্ড। মায়নমার সীমান্ত লাগোয়া অঞ্চলেও কম্পন অনুভূত হয়। রাত পর্যন্ত ক্ষয়ক্ষতির খবর জানা যায়নি। হতাহতেরও খবর নেই।

ভারতীয় মৌসম ভবনের এক আধিকারিক জানান, এদিন রাত ৮টা ৫ মিনিটে উত্তরপূর্ব মণিপুরের উখরুল জেলা ছাড়াও মায়ানমার সীমান্ত লাগোয়া বিস্তীর্ণ অঞ্চলে কম্পন অনুভূত হয়েছে। ভূমিকম্পের গভীরতা ছিল ভূগর্ভের ৭৬ কিলোমিটার গভীরে। গত সপ্তাহে (৮ ফেব্রুয়ারি) ৫ কম্পাঙ্কের ভূমিকম্প হয়েছিল পশ্চিম অসম ও উত্তরবঙ্গে। ভূমিকম্পবিদরা ভারতের পার্বত্য উত্তর-পূর্বাঞ্চলকে বিশ্বের ষষ্ঠ বড় ভূমিকম্প-প্রবণ বেল্ট হিসাবে বিবেচনা করেন। উত্তরপূর্বাঞ্চলে অতীতে একাধিক বড় ভূমিকম্প হয়েছে। ১৮৯৭ সালে শিলংয়ে ৮.২ কম্পাঙ্কের তীব্র ভূমিকম্পের রেকর্ড রয়েছে। ১৯৫০ সালে অসমে ভূমিকম্পের তীব্রতা ছিল আরও বেশি। প্রায় নয়ের কাছাকাছি। রিখটার স্কেলে সেই কম্পনের তীব্রতা ছিল ৮.৭। যার জেরে ব্রহ্মপুত্র নদীর গতিপথ পরিবর্তন হয়ে যায়।

কিছুবলারথাকলে

যোগাযোগকরুন