রোগ প্রতিরোধ শক্তি বাড়াতে ত্রিফলা কেমন ভাবে খাবেন?

herbal drink
ID 31319688 © Ksushsh | Dreamstime.com

করোনার মতো ভয়ংকর পরিস্থিতি তৈরী হয়েছে চারিদিকে করোনা ভাইরাসের প্রকোপে বিশ্বের দরবার বারবার কম্পিত। বিজ্ঞানকে তটস্থ করে রেখেছে এই মারণ ভাইরাস। ডাক্তাররা সবসময় আমাদের এটাই পরামর্শ দিচ্ছেন যে যেকোনো প্রকারে আমাদের শরীরের ইমিউনিটি বাড়িয়ে তুলতে হবে। এই অসময় অর্থাৎ বতর্মান যা পরিস্থিতি তে আমরা দাঁড়িয়ে আছি সে সময় আমাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে সবচেয়ে কার্যকর ফল হল ত্রিফলা। তিনটি ভেষজ ফলের সমন্বয় রূপ হল ত্রিফলা। আমলকী, বয়রা ও হরিতকী -এই তিনটি গুরুত্বপূর্ণ ফলকে ত্রিফলা বলা হয়। মানুষের শরীরে বিভিন্ন ভাবে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে এই ত্রিফলা। তাই রোজকার বিভিন্ন খাবারের পাশাপাশি শরীরকে আরো শক্তিশালী বানাতে আজ থেকেই  ত্রিফলার চা খেতে শুরু করুন, দেখবেন ফল হাতে না হাতেই টের পাবেন।

ত্রিফলা মিশ্রিত পানি খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়, এছাড়া মেদ কমিয়ে শরীর ঝরঝরে করে। যারা ডায়েট করছেন তাদের এক নম্বর পছন্দেই এই ত্রিফলার স্থান।শরীরের ওজন নিমেষে কমিয়ে দেয় এই ত্রিফলা।

এক কাপ জলে এক চা চামচ ত্রিফলা গুঁড়া মিশিয়ে কম আঁচে ফুটিয়ে নামিয়ে নিন। তাহলেই খুব সহজে তৈরী হয়ে যাবে ত্রিফলার চা। আর যদি স্বাদ বাড়ানোর থাকে তাহলে লেবুর রস ও মধু মিশিয়ে খেতে পারেন। ডিটক্সিফাই করে শরীরকে রক্ষা করে যাতে দাঁতের সমস্যা ও মূত্রনালীর ইনফেকশন রোধ করে এই চা।

শুধু কি তাই! এতে রয়েছে আরো নানা স্বাস্থ্যকর ক্ষমতা। যেমন খুব তাড়াতাড়ি যেকোনো ক্ষত সেরে যায়। অ্যান্টিফ্লিমেটরি ও অ্যান্টিব্যাকটেরিয়া উপাদানে ভরপুর  হওয়ায় চোখের  নিমেষে এই কাজ করে।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতেও ত্রিফলার জুড়ি মেলা মুশকিল। আপনার রক্তের চাপ যদি ওঠা নামা করে তো আজ থেকেই ত্রিফলা খেতে শুরু করুন। রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে লাইনোলিক অ্যাসিড শরীরে প্রবেশ করে।

ত্রিফলা খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটে। সকালে খালিপেটে ত্রিফলা চূর্ণ খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটে। ত্রিফলা অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে সমৃদ্ধ হওয়ায় ক্যান্সারকেও কাছে আসতে দেয় না। খালি পেটে ত্রিফলা খেলে দেহে ক্যান্সার কোশ  সৃষ্টি হয় না। আরে আগে থেকে যদি তৈরী হয়েও যায়  তা নিমেষে বিনষ্ট করে দেয়।

তাছাড়া শরীরে থাকা খারাপ কোলস্টেরল কমিয়ে দেয়, হাড়ে যাতে কোনো প্রদাহ সৃষ্টি না  হয় সেদিকেও খেয়াল রাখে, ফলে স্বাভাবিক ভাবেই করোনারি হার্ট ডিজিজ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। কোষ্ঠকাঠিন্যের প্রকোপ কমায়।যদি  সকালটাই ভালো না হয় তাহলে আর কি? দিনটা যাতে মাঠে মারা না যায় সেজন্য খালিফেটে ত্রিফলা খেতে শুরু করুন। নিয়মিত এটা খেতে পারলে খুব সহজেই এ রোগের হাত থেকে মুক্তি মিলবে। এছাড়া বায়োবেল মুভমেন্টের উন্নতি ঘটে। ত্রিফলাতে থাকে উপাদান কোলনকে পরিশুদ্ধ করতে সাহায্য করে। ত্রিফলা খেলে ওজন বাড়ার কোনো আশঙ্কা থাকে না।

শুধু সেটাই না, দৃষ্টিশক্তির উন্নতিও ঘটে। এক গ্লাস গরম জলে ১-২ চামচ ত্রিফলা মিশিয়ে রাতে রেখে দিন ও পরের দিন সকালে ভালো করে ছেঁকে চোখ পরিষ্কার করুন। দেখবেন নিয়মিত এটা করার ফলে দৃষ্টিশক্তি বাড়ান।

Anxiety বা  Stress নিয়ন্ত্রণ করতে ত্রিফলা খেতে পারেন। খালি পেটে খেলে ভিটামিন -C, শরীরে প্রচণ্ড বেড়ে যায় যা ব্রেন পাওয়ার বা সাথে স্মৃতি শক্তি বাড়িয়ে দেয়।