লকডাউনে অমিল গাড়ি, হিন্দু বৃদ্ধার লাশ কাঁধে আড়াই কিমি হেঁটে শ্মশানে গেলেন মুসলিমরা

জীবন Tamalika Basu ০৯-এপ্রিল-২০২০
Coping with situations when our level of Imaan (Faith) runs low
When there is no way - Allah will make a way

নিজামুদ্দিনের ঘটনার পর ভারতে তবলিগি জামাতকে নিশানা করা হলেও সহমর্মিতার পথ থেকে সরে আসছে না মুসলিমরা। সাম্প্রদায়িক বিষবাষ্পের মধ্যেও সম্প্রীতির নজির সৃষ্টি করলেন মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরের একদল মুসলিম। লকডাউনে গাড়ির ব্যবস্থা না করতে পারায় এক হিন্দু বৃদ্ধার সৎকার করতে পারছিলেন না তার আত্মীয়রা। কারণ, শ্মশানটি বেশ খানিকটা দূরে। তখন প্রতিবেশী মুসলিমরা এগিয়ে এসে সেই হিন্দু বৃদ্ধার মরদেহ কাঁধে নিয়ে শ্মশানে পৌঁছে দেন। সেখানেই হিন্দু রীতি অনুযায়ী শেষ কৃত্য সম্পন্ন হয়।

এই সম্প্রতির নজিরটি দেখা গেছে মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরের দক্ষিণ টোডা এলাকায়। জানা গেছে, ৬৫ বছর বয়সি দৌপদি বাইয়ের মৃত্যু হয়। পক্ষঘাতে দীর্ঘদিন ধরে ভুগছিলেন। তিনি থাকছিলেন তার বড় ছেলের সঙ্গে। অবশেষে সোমবার তার মৃত্যু হয়।

কিন্তু লকডাউন চলতে থাকায় ওই বৃদ্ধার আত্মীয়রা  কোনওভাবেই শেষকৃত্য সম্পন্নের জন্য শ্মশানে পৌঁছতে পারছিলেন না। কারণ, দাহ করতে নিয়ে যাওয়ার জন্য কোনও যানবাহন মিলছিল না। বিষয়টি কিছু মুসলিম প্রতিবেশী জানতে পারে মৃতের বাড়িতে আসেন। তারপর তাদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন।

এ ব্যাপারে মধ্যপ্রদেশে কংগ্রেসের মুখপাত্র নরেন্দ্র সালুজা জানান, করোনা ভাইরাসের সচেতনতা হিসেবে মুখে মাস্ক বেঁধে এসেছিলেন মুসলিমরা।  তারপর প্রায় ২.৫ কিলোমিটার ওই হিন্দু বৃদ্ধার দেহ কাঁধে নিয়ে তারা শ্মশানে পৌঁছন দাহের জন্য। সেই কাঁধে নিয়ে যাওয়ার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।এদিকে, স্থানীয় মুসলিমরা বলছেন, তারা ওই বৃদ্ধাকে ছোট বেলা থেকেই দেখে আসছেন। তাই তার শেষকৃত্য সম্পন্ন করাটা তাদের কর্তব্যের মধ্যে পড়ে।