লাকী আখন্দের অপ্রকাশিত গান ‘ফুল ফোটাবো’

Lucky Akhand: Great Musician of Bangladesh

বাংলাদেশের কিংবদন্তী সুরকার, সংগীত পরিচালক এবং গায়ক লাকী আখন্দ-এর সুর করা সম্পূর্ণ অপ্রকাশিত গান ‘ফুল ফোটাবো’ গানটি গোলাম মোর্শেদ-এর গীতিতে, ফুয়াদ নাসের বাবুর সুমধুর সংগীতে প্রাণ পেল ‘সাব্বির ও নাসার’ জাদুকরি কণ্ঠে। সম্প্রতি গানটি মুক্তি পেয়েছে জিপি মিউজিক-এর ব্যানারে

গানটি সম্পর্কে গীতিকার গোলাম মোর্শেদ বলেন, ২০০১ সালে লাকী ভাইকে নিয়ে লেখা এই গানটি আমার ওনাকে উদ্দেশ্য করেই এক বৈঠকে লেখা একটি গান। এতদিন গানটি বাক্সবন্দি হয়েই ছিল। গানটি যখন বাক্স থেকে বের করে দিলাম, সেই বাক্স থেকে নিয়ে ‘সাব্বির ও নাসা’ যেভাবে গাইল, মানে গানটিতে যেভাবে প্রাণ দিল; তাদের প্রতি আমার আবেগ তৈরি হয়ে গিয়েছে, যে লাকী ভাইকে নিয়ে গান ওরা গেয়েছে।

আর গানটির কম্পোজিশন যিনি করেছেন, ফুয়াদ নাসের বাবু- ওনাকে নিয়ে তো আর নতুন করে কিছু বলার নেই।

অন্যদিকে গানটির কম্পোজার ফুয়াদ নাসের বাবু বলেন, গোলাম মোর্শেদ ভাই যখন উনার একটা গানের কথা বললেন, লাকী আখন্দের সুর করা যা অপ্রকাশিত ছিল- আমি সঙ্গে সঙ্গে রাজি হয়ে গেলাম। লাকী আখন্দের গান বলে কথা! সাব্বির নাসির ও নাসা যখন গানটা গাইলেন আমি ভাবতেও পারিনি তারা এত সুন্দরভাবে উপস্থাপন করবে। আমার খুবই ভালো লেগেছে।

ভিডিওটি সম্পূর্ণ চলন্ত ট্রেন ও সিলেটের বিভিন্ন আকর্ষণীয় জায়গায় দুই দিনব্যাপী শ্যুট হয়েছে। সম্পূর্ণ প্রোডাকশনের দায়িত্বে ছিল ডিরেক্টর ফাহিন আরেফিন ইভান, যিনি নিজেও গানটি নিয়ে অত্যন্ত আশাবাদী এবং তার বিশ্বাস গানটির ভিডিও ফেসবুক ও ইউটুবের মাধ্যমে খুব দ্রুতই ছড়িয়ে যাবে শ্রোতা/দর্শকদের মাঝে।

লাকী আখান্দের অনবদ্য এবং হৃদয় ছুঁয়ে যাওয়া সুর এবং সাব্বির ও নাসার জাদুকরী কণ্ঠে গাওয়া ‘ফুল ফোটাবো’ গানটি সাব্বির নাসির ও নাসার জন্য সম্পূর্ণ আবেগের একটি জায়গা। তারা তাদের অন্তরের অন্তস্থল থেকে লাকী আখান্দের প্রতি সম্পূর্ণ শ্রদ্ধা থেকে চেষ্টা করেছেন তাদের গায়কির সর্বোচ্চ দিয়ে গানটিকে উপস্থাপন করতে। গানটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাই মনে করছেন ‘ফুল ফোটাবো’ শ্রোতাদের মনে নাড়া দিয়ে দাগ কেটে যাবে।

সঙ্গীতের রাজপুত্রখ্যাত লাকী আখন্দ আজ আমাদের মাঝে নেই। আছে তাঁর সৃষ্টি করা অদ্ভুত সব সুর। যে সুরে কখনো আমরা আত্মমগ্ন হই, কখনো সেই সুর আমাদের গভীরে নিয়ে যায় সুরের মন্দ্রতায়, সুরের অতলে। নীল মণিহারে, ফেরারী পাখির মাঝে কিংবা কবিতা পড়ার প্রহরে লাকী আখন্দ বেঁচে থাকবেন যুগের পর যুগ।

Source: Daily Sun

Photo: Collected