SalamWebToday নিউজলেটার
Sign up to get weekly SalamWebToday articles!
আমরা দুঃখিত কোনো কারণে ত্রুটি দেখা গিয়েছে:
সম্মতি জানানোর অর্থ, আপনি Salamweb-এর শর্তাবলী এবং গোপনীয়তার নীতি মেনে নিচ্ছেন
নিউজলেটার শিল্প

শীতে শরীর সুস্থ রাখে কমলালেবুর রস

স্বাস্থ্যকর খাদ্য ১১ ফেব্রু. ২০২১
সুস্বাদু
কমলালেবুর
Photo by JÉSHOOTS from Pexels

শীত বলতেই যে ফলটির কথা মনে আসে, সেটি হল কমলালেবু। পিকনিকে গল্পের ফাঁকে বা বাড়িতে দাওয়ায় বসে কমলালেবু খেতে-খেতে শীতের মিঠে রোদ উপভোগ করার মজাই আলাদা। মরশুমি এই ফলটি খেতে সুস্বাদু, রসালো, উপরন্তু নানা গুণে ঠাসা। মিষ্টত্বের জন্য আট থেকে আশি, সকলেরই প্রিয় কমলালেবু। উর্দুতে একে ‘সন্তরা’ বলা হয়। পবিত্র হাদিসে কমলালেবুর ফল বোঝাতে ‘আতরাজ’ শব্দটির উল্লেখ রয়েছে। শীতে রোজ একটা করে কমলালেবু খেলে আপনি শারীরিক নানা সমস্যাকে দূরে রাখতে পারবেন। শীতে সুস্থ থাকতে কমলালেবু কীভাবে আপনাকে সাহায্য করতে পারে, আজ আমরা সেই নিয়ে আলোচনা করব।

কমলালেবুর ইতিহাস

কমলালেবুর ইতিহাস অতি প্রাচীন। ইসলামি ঐতিহ্যে কমলালেবু জাতীয় সাইট্রাস ফলকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। তবে মিষ্টি কমলালেবুর কথা প্রথম জানা যায় খ্রিস্টপূর্ব ৩১৪ অব্দে চিনা সাহিত্যে। ইউরোপে কমলালেবুর প্রচলন শুরু হয় মুরদের হাত ধরে, তারাই প্রথম আল-আন্দালুস বা আইবেরিয় উপদ্বীপে খ্রিস্টিয় দশম শতকে কমলালেবুর চাষ শুরু করে।

জেনে নিন কমলালেবুর উপকারিতা

মরশুমি কমলালেবুর প্রভূত উপকারিতা রয়েছে। ডায়েটারি ফাইবার ও প্রাকৃতিক সুগারের পাশাপাশি এতে থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি। এছাড়া ভিটামিন বি১, বি২, বি৫, বি৬, ফোলেট ইত্যাদিও কমলালেবুতে থাকে। বিটা-ক্যারোটিন, লুটেইন, বিটা-ক্রিপটোজ্যানথিনের মতো ক্যারোটিনয়েডসের পাশাপাশি এতে থাকে ফ্ল্যাভোনয়েডসের মতো ফাইটোকেমিক্যালস। এছাড়া এতে প্রয়োজনীয় খনিজ উপাদানও যথেষ্ট পরিমাণে থাকে।

রক্তচাপ ও কোলেস্টেরল কমাতে কমলালেবু

কমলালেবুতে থাকে পটাশিয়াম, যা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। বয়স একটু বাড়লেই রক্তচাপের সমস্যা আজকাল খুব সাধারণ বিষয়। এছাড়া নিয়ম করে কমলালেবু খেলে তা কোলেস্টেরলকে দূরে রাখার ক্ষেত্রেও কার্যকরী। এতে থাকা পেকটিন ফাইবার যকৃতে কোলেস্টেরল হ্রাস করে এবং খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। খাদ্যনালী থেকে কোলেস্টেরলের শোষণে বাধা দেয় এই ফাইবার। এছাড়া কমলালেবুতে থাকা ভিটামিন সি, পটাশিয়াম এবং ফ্ল্যাভোনয়েডসও শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে সুস্থ থাকতে সাহায্য করে।

হৃদরোগের সম্ভাবনা কমায়

উচ্চ রক্তচাপ বা কোলেস্টেরল মানেই হৃদরোগের সমস্যা। কমলালেবু খেলে কিন্তু আপনি এই সবক’টি সমস্যা থেকেই মুক্তি পেতে পারেন। উপরেই আলোচনা করা হয়েছে যে কমলালেবু কীভাবে রক্তচাপ ও কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে কাজে দেয়। আর এতে থাকা ভিটামিন সি রক্তের জমাট বাধাকে আটকায় ও হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা কমাতেও সাহায্য করে।

ডায়াবেটিস দূর করে কমলালেবুর রস

সাধারণত ডায়াবেটিস যাদের থাকে, তাঁদের খাদ্যতালিকা থেকে ডাক্তাররা অনেক ফল বাদ দিতে বলেন। তাঁরা কিন্তু নিশ্চিন্তে কমলালেবু খেতে পারেন। কারণ এতে থাকা ফাইবার রক্তে শর্করা শোষণের মাত্রা কমায়, ফলে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে। তবে এর জন্য কমলালেবুর রস খাওয়ার পরিবর্তে গোটা একটি কমলালেবু খেলেই বেশি কাজে দেবে।

কিডনির পাথর প্রতিরোধ করে

কিডনিতে পাথর হওয়াকে প্রতিরোধ করতে কমলালেবুর জুড়ি নেই। মূত্রে সাইট্রেটের অভাব অনেকসময় কিডনির পাথরের কারণ হয়। সেই সমস্যা দূর করে কমলালেবু। এই ফল মূত্রে সাইট্রেটের মাত্রা বাড়িয়ে কিডনির পাথর হওয়াকে আটকায়। এছাড়া এতে থাকা ক্যালসিয়ামও এক্ষেত্রে উপকারী।

কমলালেবুর ভিটামিন সি রক্তাল্পতা দূর করে

পৃথিবীর প্রায় অর্ধেক মহিলা অ্যানিমিয়া বা রক্তাল্পতার সমস্যায় ভোগেন। এটি কিন্তু খুব গুরুতর একটি সমস্যা। এক্ষেত্রে আয়রন সাপ্লিমেন্টের পাশাপাশি কমলালেবুও দারুণ কাজে দেয়। মনে রাখবেন, শরীরে পর্যাপ্ত পরিমাণ ভিটামিন সি-এর যোগান না থাকলে কিন্তু যথাযথভাবে আয়রনের শোষণ সম্ভব না। কমলালেবুতে থাকা ভিটামিন সি সেই কাজে সহায়তা করে। এতে থাকা ফোলিক অ্যাসিড মেগালোব্লাস্টিক অ্যানিমিয়ার সম্ভাবনা দূর করে। ফলে এইসমস্ত রোগ থেকে সুস্থ থাকতে কমলালেবু খাওয়া অত্যন্ত জরুরি।

কোলন ক্যানসারকে আটকায়

আজ্ঞে হ্যাঁ, এই গুরুতর রোগটিকে দূরে সরাতেও কিন্তু কমলালেবুর জুড়ি নেই। কমলালেবুর রসে থাকে হেসপারিডিন, যা এই কাজে সাহায্য করে। কমলালেবুতে থাকা ফাইবার কোলন ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়। এছাড়া এই ফাইবার কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। কমলালেবুতে থাকা ফ্রুক্টোজ গ্যাস হওয়া আটকায়। তবে এই বিষয়ে আরও গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে।

চোখ ভাল রাখে

চোখ ভাল রাখতে এবং দৃষ্টিশক্তি ঠিক রাখতে কমলা বা হলুদ রংয়ের ফল কাজে দেয়। তাই চোখের সমস্যায় কমলালেবু খেতে পারেন। এতে থাকে ফ্ল্যাভোনয়েডস, যা দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়। এছাড়া বয়সজনিত চোখের সমস্যায় যারা ভোগেন, তাঁরাও কমলালেবু তাঁদের খাদ্যতালিকায় নিয়ম করে রাখতে পারেন।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

আপনার যদি ঘনঘন সর্দিকাশি বা ইনফেকশনের প্রবণতা থাকে, তাহলে কমলালেবু খেলে অনেকটাই উপকার পাবেন। কারণ এতে থাকা ভিটামিন সি শরীরের রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা সার্বিকভাবে বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে। এছাড়া কমলালেবুতে থাকে ফোলেট ও কপার, যা রোগ প্রতিরোধে বিশেষ কাজে দেয়।

ওজন কমাতে কার্যকরী

যারা ওজন কমিয়ে ঝরঝরে থাকতে চান, তাঁরা রোজ কমলালেবু খান। এতে থাকা ফাইবার এই কাজে সহায়ক। ফাইবার খিদে কমাতে সাহায্য করে। ফলে দৈনিক ক্যালোরি গ্রহণের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। মিষ্টি খেলে ওজন বাড়ে দ্রুত, কমলালেবু কিন্তু এই মিষ্টি খাবার চাহিদাকেও নিয়ন্ত্রণে বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

এছাড়া পলিসিস্টিক ওভারির সমস্যা দূর করতে, ত্বক উজ্জ্বল রাখতেও কমলালেবুর জুড়ি নেই।

সুস্থ থাকতে রস নয়, গোটা কমলালেবু খান

অনেকে গোটা ফল খাওয়ার চেয়ে অনেকসময় রস করে খাওয়াই পছন্দ করেন। তবে রস করে খেলে কমলালেবুতে থাকা ফাইবার বাদ চলে যায়। ফলে বাদ চলে যায় এর অর্ধেক গুণ। তাই এবার থেকে রস করে নয়, সুস্থ থাকতে অভ্যেস করুন গোটা কমলালেবু খাওয়া।

তবে কমলালেবু সারাবছর পাবেন না, আর শীতও পালাই-পালাই করছে। ফলে আর যে-ক’টা দিন শীত রয়েছে, বাজারে কমলালেবু রয়েছে, সেই ক’দিন চুটিয়ে কমলালেবুর মজা উপভোগ করে নিন।