সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে পথে নামছেন মমতা

Uncategorized Tamalika Basu ১৪-ডিসে.-২০১৯

কলকাতা : সংশোধনী নাগরিকত্ব আইন নিয়ে শনিবার গোটা দিন জুড়ে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ চলে। রেল অবরোধের সঙ্গে রাস্তা রোকো, ইট-পাটকেল ছোড়ার পাশাপাশি কয়েক জায়গায় বাসে ও ট্রেনে আগুন লাগানোর ঘটনাও ঘটেছে। এই আইনের (সিএবি) বিরুদ্ধে সোমবার থেকে আন্দোলনে নামছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ‘নো সিএবি, নো এনআরসি’ স্লোগান নিয়ে সোম, মঙ্গল ও বুধবার তিন দিন কলকাতা ও হাওড়ায় দলের প্রতিবাদ কর্মসূচিতে শামিল হবেন মমতা।

কলকাতার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে বলা হয়, এই প্রতিবাদে তৃণমূলের পক্ষ থেকে বিজেপিবিরোধী সব দলকে অংশ নিতে এবং শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখার আহ্বান জানানো হয়েছে। শনিবার বিকেল থেকে নতুন করে অবরোধ শুরু হয় দক্ষিণ-পূর্ব রেলের সাঁতরাগাছিতে। তবে, সবচেয়ে খারাপ চেহারা নেয় মুর্শিদাবাদ জেলা। পূর্ব রেলের লালগোলা এবং কৃষ্ণপুর স্টেশনে জ্বালিয়ে দেওয়া হয় একাধিক ট্রেন। আগুন লাগানো হয় লালগোলা স্টেশনে। একই সঙ্গে সুতিতে বাস পুড়িয়ে দেওয়ার পাশাপাশি সামশেরগঞ্জ থানায় হামলা চালানো হয়। এ দিন বিকেলে লালগোলার আগের স্টেশন কৃষ্ণপুরে থামিয়ে দেওয়া হয় একটি ট্রেনকে। যাত্রীদের নামিয়ে দিয়ে সেই ট্রেনে আগুন লাগিয়ে দেন বিক্ষোভকারীরা। পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ফাঁকা ট্রেনও জ্বলতে দেখা যায়। লালগোলা স্টেশনে আগুন লাগানো হয় রেলের সম্পত্তিতে।

শনিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তিনি বলেন, ‘বাংলায় কোনও নাগরিকত্ব আইন বা এনআরসি প্রয়োগ হবে না। কারণ আমরা এখানে সরকারে রয়েছি। কেন্দ্র একটি আইন পাস করতেই পারে তবে তার বাস্তবায়ন নির্ভর করছে রাজ্য সরকারের উপর। আমরা বলেছি যে আমরা এটির প্রয়োগ করতে দেবো না। সুতরাং আপনারা আশ্বস্ত থাকুন, ভাল থাকুন, চিন্তা করবেন না।