SalamWebToday নিউজলেটার
Sign up to get weekly SalamWebToday articles!
আমরা দুঃখিত কোনো কারণে ত্রুটি দেখা গিয়েছে:
সম্মতি জানানোর অর্থ, আপনি Salamweb-এর শর্তাবলী এবং গোপনীয়তার নীতি মেনে নিচ্ছেন
নিউজলেটার শিল্প

সফল ব্যবসায়ী হওয়ার ১০টি কৌশল

ব্যবসা ২৩ ফেব্রু. ২০২১
মতামত
সফল ব্যবসায়ী

ব্যবসা হলো হালাল উপায়ে সহজে ধনী হওয়ার এমন একটি হাতিয়ার যাকে পুঁজি করে পৃথিবীর বুক চাপড়ে বেড়াচ্ছেন সফল ব্যক্তিরা। আর এই সফলতার প্রবল ইচ্ছা প্রতিনিয়ত তাড়া করে বেড়ায় প্রত্যেকটি মানুষকেই। সফলতার এই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে অনেকেই ব্যবসাকে বেছে নেয়। তবে সফল ব্যবসায়ী কে?

কিন্তু ব্যবসার পথ বেছে নিলেই যে কেউ বিত্তবান হয়ে যাবে ব্যাপারটা মোটেও এরকম নয়। মনে রাখা ভাল, ব্যবসা যেমন কাউকে বিত্তের পাহাড়ে চড়িয়ে দিতে পারে, ঠিক তেমনি কাউকে করে দিতে পারে সর্বশান্ত। সাফল্যের সামনে থাকা বিশাল বাধা অতিক্রম করতে হলে হোঁচট খেতেই হবে, পথের মাঝে আসবে নানা বাধা-বিপত্তি। আর সেসব বাধা-বিপত্তিকে কাটিয়ে সফলতা পর্যন্ত পৌঁছানোর জন্য রপ্তকরা চাই কিছু কৌশল।

নিম্নে এমনই ১০ টি কৌশল সম্বন্ধে আলোচনা করা হল যেগুলি অবলম্বন করে আপনিও হয়ে উঠতে পারেন একজন সফল ব্যবসায়ী।

১। সফল ব্যবসায়ী হতে সৃজনশীল হোন

যুগের সাথে সাথে মানুষের চাহিদা ও চিন্তাভাবনার ধরনও পরিবর্তিত হয়। তাই সবযুগে ব্যবসা একরকম হয় না। প্রতিনিয়তই বাড়ছে প্রতিদ্বন্দ্বিতা, আসছে নিত্যনতুন পদ্ধতি আর তৈরী হচ্ছে নানা সৃজনশীলতা। তাই এই ডিজিটাল প্লাটফর্মে নিজের অস্তিত্বকে টিকিয়ে ব্যবসাই সফল হতে হলে আপনাকেও সৃজনশীল হতে হবে। তাই আপনার ব্যবসাকে উন্নত করার জন্য প্রতিনিয়ত নতুন পন্থা অবলম্বন করুন, যাতে করে আপনার এই নতুন পন্থা অন্য সকল প্রতিযোগিদের চেয়ে ব্যতিক্রমী থাকে।

২। একনিষ্ঠ থাকুন

আপনি সবেমাত্র একটি ব্যবসা আরম্ভ করেছেন। এর মানে এই নয় যে, আপনি এখন থেকেই রাতারাতি লাভবান হওয়া শুরু করবেন। আপনি কে, আর আপনার ব্যবসা কেমন তা জানতে ক্রেতাদের সময় লাগবে। তাই ব্যবসায়িক লক্ষ্য অর্জনে আপনাকে সর্বদা একনিষ্ঠ থাকতে হবে। নিজের লক্ষ্যে একনিষ্ঠ হয়ে বাকিটাকে ব্যবসার নিজস্ব গতির উপর ছেড়ে দিন।

৩। প্রতিযোগিতাকে চিহ্নিত করুন

প্রতিযোগিতার মনোভাব মস্তিষ্ককে বিপুল পরিমাণে সক্রিয় করে তোলে। যার ফলে একদিকে কাজ দ্রুত সম্পন্ন হয় এবং এর পাশাপাশি অধিক পরিমাণে কাজও সম্পাদিত হয়। যেটি আপনার ব্যবসায় সুফল বয়ে আনতে সক্ষম। তাই ব্যবসায় সফল হতে হলে আপনাকে অবশ্যই নিজের মাঝে প্রতিযোগিতামূলক মনোভাব সৃষ্টি করতে হবে। এবং এর সাথে সাথে আপনাকে অবশ্যই আপনার প্রতিদ্বন্দ্বি ব্যবসায়ীদের ব্যাপারে মনোযোগী হতে হবে। তাদের কর্মপরিকল্পনা এবং সে অনুযায়ী আপনার কর্মপরিকল্পনা সাজিয়ে নিলে আপনি তাদের মোকাবেলা সাফল্যের সাথে করতে পারবেন।

৪। গোছানো থাকুন সফল ব্যবসায়ী হতে চাইলে 

অগোছালো মানুষ কোনকাজেই সফলতা অর্জন করতে পারে না । তাই একজন ব্যবসায়ী যদি তাঁর কাজে অগোছালো হয় তাহলে তার ব্যবসায় কখনই সাফল্য আসবে না। কেননা ব্যবসা এমন একটি বিষয় যেখানে ফাঁকিবাজির কোনো স্থান নেই। ফাঁকিবাজি আপনাকে ব্যর্থতায় পর্যবসিত করবে। অপরদিকে আপনি যদি নিজেকে একজন গোছালো এবং পরিপাটি মানুষ হিসেবে উপস্থাপন করতে পারেন তবে এই অভ্যাসটিই আপনাকে সফলতার বিশাল সিঁড়ির একধাপ এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে। তাছাড়া গোছালো কাজে সময়ের অপচয় কম হয় আর সেই সময়টুকু কাজে ব্যাবহার করলে কাজের উন্নতি সাধন হবে।

৫। ঝুঁকি এবং ফলাফল হিসাব করুন

ব্যবসায় সফলতার অন্যতম চাবিকাঠি হচ্ছে, হিসেব করে ঝুঁকি নেওয়া। কেননা ব্যবসা এমন একটি প্লাটফর্ম যেখানে প্রতিনিয়ত আপনাকে ঝুঁকি নিতে হবে। প্রতিটি পদক্ষেপেই আপনাকে ঝুঁকি অথবা ঝুঁকিমূলক সিদ্ধান্তের সম্মুখীন হতে হবে এবং এটাই বাস্তবতা। প্রতিটি ব্যবসায়ীরাই ঝুকি নিয়ে থাকেন। কিন্তু সফল ব্যবসায়ীরা ঝুঁকি নেওয়ার সাথে সাথে ভবিষ্যত ফলাফলের হিসাবও কষে ফেলেন। তাই ব্যবসায় সফলতা অর্জন করতে হলে আপনাকেও এই কৌশল অবলম্বন করতে হবে।

৬। প্রতিটি জিনিসের বিস্তারিত বিবরণ রাখুন

সকল সফল ব্যবসায়ী-রাই তাদের প্রতিটি ব্যবসায়িক পণ্যের বিস্তারিত বিবরণ সংরক্ষণ করেন। এবং সেখান থেকে ব্যবসার লাভ-ক্ষতির হিসাব মেলান। কেননা ব্যবসা করতে হলে বেহিসাবি হলে একদমই চলবে না। তাহলে ব্যবসায় ধস নামতে পারে। বেহিসাবীভাবে ব্যবসা চলতে থাকলে লাভের থেকে ক্ষতির সম্মুখীনই বেশি হতে হবে। তাই প্রতিটি পণ্যের বিস্তারিত বিবরণ রাখার আপ্রাণ চেষ্টা করতে হবে। এতে করে প্রত্যেকটি পণ্যের হিসাব যেমন আপনার কাছে থাকবে, তেমনি আপনার ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের সার্বিক অবস্থা এবং সামনে কি কি চ্যালেঞ্জ রয়েছে সে সম্পর্কেও অবগত হতে পারবেন।

৭। উন্নত মানের সেবা প্রদান করুন

গ্রাহকদের উন্নত মানের সেবা প্রদান যেমন আপনার ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের সুনাম বয়ে আনবে, তেমনি আপনাকে সাফল্যের চূড়ান্তে পৌঁছানোর জন্যও সাহায্য করবে। এটি একটি পরিক্ষিত কৌশল। আপনি যদি কোনো গ্রাহককে উন্নতমানের সেবা প্রদান করেন তবে তারা পরেরবার আপনার নিকট অবশ্যই আসবে। যেটা আপনার পন্যকে অন্য ক্রেতাদের মাঝে জনপ্রিয় করে তুলবে। কিন্তু আপনি যদি নিম্নমানের সেবা প্রদান করেন তাহলে ক্রেতা আপনার ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে বিরূপ ধারনা নিয়ে যাবে। যেটা আপনার ব্যবসার জন্য বিরাট ক্ষতিস্বরূপ।

৮। সফল ব্যবসায়ী ত্যাগের জন্যে প্রস্তুত থাকুন

একটি ব্যবসা দাঁড় করানো এতটা সহজ নয় যে, একবার আরম্ভ করলেই আপনার কাজ শুরু হয়ে গেলো। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই আপনাকে এর পিছনে অনেক সময় ও অর্থ ব্যয় করতে হবে। আপনাকে অনেক ত্যাগ স্বীকার করতে হবে। যেমন, পরিবার বা বন্ধুবান্দবদের সাথে তুলনামূলক কম সময় ব্যয় করতে হবে। ত্যাগের জন্য প্রস্তুত থাকতে পারলে অদূরেই আপনি হবেন একজন সফল ব্যবসায়ী।

৯। বহুমাত্রিক অভিজ্ঞতা অর্জন করুন

যেকোনো কাজে সফলতা অর্জনের জন্য বহুবিধ অভিজ্ঞতার প্রয়োজন হয়। আপনার অভিজ্ঞতার ভাণ্ডার যত সমৃদ্ধ হবে, সাফল্যের সম্ভাবনাও তত বৃদ্ধি পাবে। এজন্য আপনাকে চেষ্টা করতে হবে নিত্য-নতুন অভিজ্ঞতা সঞ্চয়ে। পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের চ্যালেঞ্জ গ্রহণ ও ব্যবসার নিত্যনতুন বিষয় শিখতে হবে।

১০। ধারাবাহিকতা বজায় রাখুন

ব্যবসায় সফলতাকে দীর্ঘদিন ধরে রাখতে ধারাবাহিতার কোনো বিকল্প হতে পারে না। ধারাবাহিকভাবে আপনাকে আপনার কর্মপরিকল্পনা নিতে হবে এবং তা বাস্তবায়ন করে যেতে হবে। যেটা আপনাকে ক্রেতাদের মাঝে বিশ্বস্ত করে তুলবে এবং আপনার ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানকে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছে দেবে। অন্যদিকে ধারাবাহিকতা বজায় না রাখলে ক্রেতারা আপনার প্রতিষ্ঠান থেকে মুখ ফিরিয়ে নেবে। তাই ব্যবসায় সফল হতে হলে ধারাবাহিতা বজায় রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।

একটি ব্যবসা দাঁড় করানো এবং খুব দ্রুত সাফল্য বয়ে আনা খুবই চ্যালেঞ্জিং একটি বিষয়। ধৈর্য্য, একনিষ্ঠতা এবং নিয়মানুবর্তিতা সাফল্যের পূর্বশর্ত। সাফল্য একদিনে আসবে না। এর জন্য আপনাকে অনবরত প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে।