হিমালয়ান এয়ারলাইনসের কাঠমন্ডু-ঢাকা ফ্লাইট চালু

সৌন্দর্যনীয় স্থান Omar Faruque ২৮-আগস্ট-২০১৯

আগে শুধুমাত্র বাংলাদেশ বিমান এই রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করতো। যাত্রী ও পর্যটকদের আগ্রহে সম্প্রতি নেপাল ও চীনের একটি জয়েন্ট ভেঞ্চার প্রাইভেট এয়ারলাইন কোম্পানি হিমালয়ান এয়ারলাইনস ২০ শে জুলাই ২০১৯ থেকে কাঠমান্ডু-ঢাকা-কাঠমান্ডু সরাসরি বিমান চলাচল শুরু করে। ন্যাশনাল ফ্ল্যাগ ক্যারিয়ার নেপাল এয়ারলাইন্স এর পরেই অবস্থান হিমালয়ান এয়ারলাইন্সের। হিমালয়ান এয়ারলাইনসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বিমান সংস্থাটি কাঠমান্ডু-ঢাকা-কাঠমান্ডু রুটে এ৩২০-২১৪ বিমানের মাধ্যমে সপ্তাহে তিনটি ফ্লাইট পরিচালনা করবে। বিমানগুলোতে ১৫০টি ইকোনমি ও আটটি প্রিমিয়াম ইকোনমি ক্লাসের আসন থাকবে। প্রিমিয়াম ইকোনমি ক্লাসের যাত্রীরা ২৫ কেজি এবং ইকোনমি ক্লাসের যাত্রীরা ২০ কেজি ওজনের লাগেজ নিতে পারবেন।

সব ক্ষেত্রে দু’দেশের মধ্যকার যোগাযোগ জোরদারের ওপর গুরুত্বারোপ করে বাংলাদেশে নিযুক্ত নেপালের ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রদূত ধান বাহাদুর ওলি বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে নেপালের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক জোরদারের ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে। গত জুলাইয়ে নেপালি দূতাবাসে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি আরও বলেন, ‘যোগাযোগের ব্যাপারে কথা বলার সময় আমরা একমুখী যোগাযোগের কথা বলি না।’

হিমালয় এয়ারলাইনস বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সুশীল কুমার বাসনেত বলেন, অন্যান্য বিমান কোম্পানির তুলনায় এই কোম্পানির ফ্লাইটগুলোর টিকিটের দাম অনেক কম।

বিমান কোম্পানিটি দোহা, দুবাই ও দাম্মামের মতো মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে নিয়মিত ফ্লাইট পরিচালনা করে আসছে। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মতোই বাংলাদেশি যাত্রীদের ট্রানজিট হিসেবে কাঠমান্ডুর নতুন প্রকল্পটি গুরুত্বপূর্ণ সেবা দেবে। যোগাযোগের এই নতুন ক্ষেত্রটি নেপাল ও বাংলাদেশের মধ্যে ব্যবসা বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে। বিমান সংস্থা হিমালয়ান এয়ারলাইনস জেনারেল সেলস এজেন্ট হিসেবে এস এয়ার এয়ার বিডি লিমিটেডকে নিয়োগ দিয়েছে।

 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে বিমান কোম্পানির ভাইস প্রেসিডেন্ট বিজয় শ্রেষ্ঠা বলেন, কাঠমান্ডু-ঢাকা-কাঠমান্ডু রুটটি নেপাল ও বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের জন্য একটি নতুন সুযোগ সৃষ্টি করার পাশাপাশি বাংলাদেশ ও মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে একটি সেতু হিসেবেও কাজ করবে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সপ্তাহে তিনবার ফ্লাইটগুলো পরিচালনা করা হবে। ফ্লাইটগুলো স্থানীয় সময় সকাল ১১টা ১০ মিনিটে কাঠমান্ডু থেকে ছেড়ে স্থানীয় সময় বেলা ১টা ১০ মিনিটে ঢাকায় অবতরণ করবে। ফিরতি ফ্লাইটে স্থানীয় সময় বেলা ২টা ১০ মিনিটে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়ন করবে এবং স্থানীয় সময় বেলা ৩টা ২০ মিনিটে নেপালের ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করবে।

Source: The Daily Sun

Photo: Unsplash