SalamWebToday নিউজলেটার
সালামওয়েবটুডে থেকে সাপ্তাহিক নিবন্ধ পাওয়ার জন্য সাইন আপ করুন
আমরা দুঃখিত কোনো কারণে ত্রুটি দেখা গিয়েছে:
সম্মতি জানানোর অর্থ, আপনি Salamweb-এর শর্তাবলী এবং গোপনীয়তার নীতি মেনে নিচ্ছেন
নিউজলেটার শিল্প

২০২১ সালের জন্য ৬ টি বৃহৎ পরিকল্পনা

মনস্তত্ত্ব ০৮ জানু. ২০২১
ফিচার
পরিকল্পনা
© Stokkete | Dreamstime.com

নিজের উদ্দেশ্যকে পরিকল্পনার মাধ্যমে পরিচালিত করা নিজেকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার এক দুর্দান্ত উপায়। আমরা প্রতিবছর রমজানের শেষ দিকে নিজেকে পরিবর্তনের জন্য আন্তরিকভাবে নিয়ত করি। এবং তারপরে আবার প্রতি বছরের শেষে, নতুন বছরের জন্য নতুন করে পরিকল্পনা গ্রহণ করি।

অর্থাৎ, বছরে কমপক্ষে দুইবার আমাদের মহান লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে যাওয়ার জন্য আমরা পরিকল্পনা করি। বিগত বছরটি আমাদের পরিকল্পনাগুলিকে নিয়ে নতুন করে চিন্তা করার এক অনন্য সুযোগ এনে দিয়েছে।

জীবনের সবগুলি দিক বিবেচনা করে আমরা ৬টি বৃহৎ পরিকল্পনা বাছাই করেছি যেগুলির দিকে দৃষ্টি নিবদ্ধ করলে আশা করা যায় ২০২১ সালটি আমাদের জন্য দুর্দান্ত একটি বছর হবে।

সেই ৬টি বৃহৎ পরিকল্পনা নিয়ে নিম্নে আলোচনা করা হলঃ

১) কঠোর স্বভাবের লোকদেরকে এড়িয়ে চলুন

ড. ড্যানিয়েল টি. দ্রুবিন তাঁর বইয়ের শুরুতে বানরকে ধরার উপায় নিয়ে একটি মজার গল্প লিখেছেন। তিনি লিখেছেন, “আপনি যদি বানরকে দেখিয়ে কলসের ভিতর একটি কলা ফেলেন তবে বানরটি কলাটি পেতে কলসের গভীর থেকে গভীরে হাত ঢুকিয়ে সেটি নেওয়ার চেষ্টা করবে। এইভাবে একসময় তার হাত কলসের ভিতর আটকে যাবে এবং কলাটি ধরতে পেলেও সে আর তা বের করতে পারবে না।” তিনি এই উদাহরণটি রূপক হিসাবে ব্যবহার করেছেন যাতে জীবনের যে সকল জিনিস আমরা পাব না বা আমাদের চলার গতিকে থামিয়ে দিবে সে সকল জিনিসের পিছনে আমাদের মূল্যবান সময় যেন নষ্ট না করি।

নির্দিষ্ট কিছু লোককে এড়িয়ে চলা মুসলিমদের পক্ষে আসলেই অনেক কঠিন একটি ব্যাপার। অনেক মুসলমানই তাঁর সহ মুসলিমদের অধিকার আদায়ের বিষয়ে এবং অন্যান্য মুসলিম ভাইদের প্রতি ক্রুদ্ধ হওয়ার বিষয় নিয়ে উদ্বিগ্ন। আল্লাহ কি চান যে আমরা কারও সাথে দুর্ব্যবহার করি? অবশ্যই না। তাই যারা দুর্ব্যবহার করে ও কঠিন স্বভাবের লোক তাদেরকে এড়িয়ে চলুন। এতে কারও দুর্ব্যবহারে আপনার কাজে বাধা পড়বে না এবং আপনার চলার গতিও স্বাভাবিক থাকবে।

২) কিছু বিষয়কে আরও সীমিত করুন

অবশেষে, একসাথে অনেক কাজের স্বাস্থ্যগত সমস্যাগুলি আমরা চিনতে শুরু করেছি। একসাথে অনেক কিছু করতে গিয়ে আমরা আসলেই অনেক ভোগান্তির স্বীকার হয়েছি।

আপনার দৃষ্টি যদি একটি কাজের মধ্যে নিবদ্ধ না হয়ে একসাথে অনেকগুলি কাজের দিকে যায় তবে আপনি অচিরেই খেয়াল করবেন, একটি কাজ সুচারুভাবে সম্পাদনের পূর্বেই আরেকটি আপনার সামনে এসে উপস্থিত হয়েছে এবং একটি কাজও সঠিকভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব হয়নি।

সুতরাং, যেকোনো কাজ করার সময় একবারে একটি কাজের দিকে মনোনিবেশ করুন। কাজটি সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন নিশ্চিত করতে টাইমার ব্যবহার করতে পারেন। একটি টাইমার সেট করে, হাতের কাজটিকে গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনা করে মনোযোগের সাথে সেটিকে সম্পাদনের চেষ্টা করুন। শেষ পর্যন্ত আপনি দেখতে পাবেন আপনার সকল কাজই সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন হয়েছে এবং এটি আপনার মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতিরও একটি কারণ হবে।

৩) বাজেট নিয়ে পুনর্বিবেচনা করুন

২০২০ সালটি আমাদের বেশিরভাগ মানুষের জন্যই একটি আর্থিক দুঃস্বপ্ন ছিল। অবশ্য বাড়িতে আটকে থাকার সময়গুলিতে অনলাইন ক্রয়-বিক্রয়ের গতি এমন বেড়েছিল যে, সর্বস্তরের মানুষই এখন অনলাইনে কেনাকাটা করতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করা শুরু করেছে এবং এটি আমাদের হতাশাকে অনেকাংশে দূর করতেও সক্ষম।

আপনি কীভাবে আপনার অর্থ ব্যয় করবেন তা পুনর্বিবেচনা করার সময় এখনই। হয়ত আপনি কিছু বিনিয়োগ করতে আগ্রহী। এমনকি এটিও হতে পারে যে, আপনি প্রথমবারের মত হয়ত কোনো বাজেট তৈরি করবেন। আপনার আয় এবং ব্যয় সম্পর্কে বাস্তবসম্মত বোঝাপড়া থাকলে আর দেরি না করে এখনই বাজেটের পরিকল্পনা করতে পারেন। নতুন বছরে এটি অবশ্যই আপনার চাপ কমিয়ে আনবে।

৪) নিজের যত্ন নিন

২০২০ সাল আমাদের শরীর, মন ও আত্মাকে সীমাবদ্ধ করে দিয়েছে। বিভিন্ন সংস্থার রিপোর্ট থেকে এটি পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে যে, সাম্প্রতিক বছরগুলিতে সকল বয়সের মানুষেরই মানসিক স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটেছে। এই কারণে, ২০২১ সালটি আমাদের সকলের জন্য একটি চাপের বছর হতে পারে। এছাড়া, বিগত বছরের লকডাউনের কারণে আমাদের অনেকেরই অভ্যাসে অনেক পরিবর্তন এসেছে।

২০২০ সালকে আপনার অতিবাহিত খারাপ বছরগুলির মধ্যে অন্যতম বিবেচনা করে এখানেই খারাপের ইতি টানুন। আপনার শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতির জন্য আজই পরিকল্পনা গ্রহণ করুন। এবং সার্বিক স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটাতে অভিজ্ঞদের সাথে পরামর্শ করুন।

৫) প্রকৃতিকে ব্যবহার করতে শিখুন

আপনি কি বিগত বছর বাইরের প্রকৃতিকে খুব বেশি মিস করেছেন? বাড়িতে আটকে থেকে অবশেষে প্রকৃতির উপকারিতা আমাদের বুঝে এসেছে! প্রকৃতি যে সত্যিই কতটা সুন্দর, প্রকৃতির মধ্যে থাকা আমাদের আবেগকে যে কতটা প্রশান্ত করে তোলে এবং মানসিক স্বাস্থ্যের অনুশীলনের জন্য প্রকৃতি যে অন্যতম সেরা জায়গা এটি আমাদের খুব ভালোভাবেই বুঝে এসেছে।

২০২১ সালে প্রকৃতির সাথে সংযোগ স্থাপনের জন্য বিভিন্ন উপায় খুঁজে বের করুন। প্রকৃতিকে উপভোগ করুন এবং এরপর আপনার স্বাস্থ্যের উন্নতিকে পর্যালোচনা করুন। আপনি যদি নিজেকে কিছু সময়ের জন্যও প্রকৃতির মাঝে ছেড়ে দেন তবে অবশ্যই প্রকৃতির মাঝে সময় কাটানোর উপকারিতা আপনি খুব ভালোভাবেি অনুধাবন করতে পারবেন।

৬) কৃতজ্ঞ হন

কৃতজ্ঞতার মনোভাব গড়ে তোলার সংস্কৃতি আমদের সমাজে গত কয়েক দশক থেকে কিছুটা হলেও বৃদ্ধি পেয়েছে। অথচ, প্রায় ১৪৫০ বছর আগে রাসুল সাল্লাল্লাহু আ’লাইহি ওয়া সাল্লাম তাঁর উম্মতকে জীবনের সকল পর্যায়ে কৃতজ্ঞতার শিক্ষা দিয়ে গেছেন। তাহলে মুসলিম হয়েও আমাদের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা এতটা কঠিন কেন?

সর্বমহলেই এটি স্বীকৃত যে, নেতিবাচক ঘটনা মানুষের খুব সহজেই মনে থাকে। কারণ, নেতিবাচক বিষয়গুলি মানুষের মস্তিষ্কে গভীর প্রভাব ফেলে। এই নেতিবাচক প্রভাবকে খুব সহজেই এড়িয়ে যাওয়া যায় আমাদের চারপাশে ঘটে যাওয়া সকল বিষয়ের কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপনের অভ্যাস গঠনের মাধ্যমে।

জীবনের সমস্ত ভাল অবস্থার জন্য আপনার উচিত আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করা। কারণ, সমস্ত মঙ্গল একমাত্র আল্লাহরই জন্য। নিয়মিত তাঁর শুকরিয়া আদায় করা এবং তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞ হওয়া কৃতজ্ঞতার সুস্থ মনোভাব গড়ে তোলার ব্যাপারে আপনার জন্য অনেক সহায়ক হবে।

এই পরিকল্পনাগুলি গ্রহণ ও বাস্তবায়নের মাধ্যমে ২০২১ সালকে আল্লাহ আমাদের জন্য একটি রহমতের বছর বানিয়ে দিন। আমীন।