SalamWebToday নিউজলেটার
Sign up to get weekly SalamWebToday articles!
আমরা দুঃখিত কোনো কারণে ত্রুটি দেখা গিয়েছে:
সম্মতি জানানোর অর্থ, আপনি Salamweb-এর শর্তাবলী এবং গোপনীয়তার নীতি মেনে নিচ্ছেন
নিউজলেটার শিল্প

সমুদ্রের ফেনা সাদা হওয়ার কারণ?

প্রকৃতি ১৫ জুন ২০২০
সমুদ্রের ফেনা
Fotoğraf: Delphine Ducaruge-

পানির অপর নাম হচ্ছে জীবন। জীবন বাঁচাতে বিশুদ্ধ পানির কোনো বিকল্প নেই। পৃথিবীর সকল জীব পানির উপর নির্ভরশীল।

আমরা জানি পৃথিবীর চার ভাগের তিন ভাগ পানি আর এক ভাগ স্থল।

তবে এই পানির সবটুকুই সুপেয় পান যোগ্য নয়। এই পানির একটা অনেক বড় অংশ রয়েছে সাগরে। এবং তা লবণাক্ত।

আমরা যখন কোন সমুদ্রের কিনারায় গিয়ে দাঁড়াই তখন আমরা ঢেউ দেখতে পাই।

এবং ঢেউগুলো যখন আছড়ে পড়ে তখন আমরা আশ্চর্যজনকভাবে দেখি ঢেউয়ের সাথে সাদা ফেনা।

কেন এই ফেনা সাদা হয়? সাদা হওয়ার মূল রহস্য কি? একি অলৌকিক কিছু, নাকি এর বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা আছে?

আজকে আমরা জানার চেষ্টা করব সমুদ্রের ফেনা কেন সাদা হয়।

সমুদ্রের ফেনা সাদা কেন হয়?

আমরা জানি পানি মূলত স্বছ এবংএর কোনো রং নেই। আমরা সমুদ্র কিনারায় দাঁড়াই তখন আমরা সাধারনত দেখতে পাই পানির রং নীল রঙের।

কিন্তু এই পানির ঢেউ গুলোর ফেনার রং সাদা হয়ে থাকে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে এই ঢেউগুলো ফেনার রং সাদা কেন হয়?

এর বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা কি? অর্থাৎ সমুদ্রের ফেনা সাদা হয় কেন?

অনেকেরই ধারণা পানি লবণাক্ত হওয়ায় সমুদ্রের ফেনা সাদা হয়ে থাকে।

কিন্তু বিষয়টি মোটেও তা নয়। আসলে সূর্যের আলোর কারণে এরকমটি হয়ে থাকে।

সূর্যের আলো মূলত সাদা। সূর্য দৃশ্যমান সব তরঙ্গ দৈর্ঘ্যের আলো নির্গত করে। যা সমন্বিতভাবে সাদা রং ধারণ করে। আর সমুদ্রের আছে পড়া ঢেউ থেকে ফেনা তৈরি হয়। অসংখ্য ছোট ছোট বুদবুদের সমন্বয়ে এই ফেনা তৈরি হয়ে থাকে। এই বুদবুদের বাইরে থাকে পানির একটি পাতলা আবরণ। যার ভেতরে পুরোটাই বাতাস।

পানির একেকটি ফোটার পুরোটাই পানি। সূর্যের আলোক রশ্মি পানির বুদবুদ এবং পানির ফোঁটা এই দুইয়ের ভিতর দিয়েই অতিক্রান্ত হয়। পানির ফোটা সূর্যের আলোক রশ্মি থেকে যে পরিমাণ আলো শোষণ করে পানির বুদবুদ তার থেকে তুলনামূলক অনেক কম সূর্যের আলোক রশ্মি শোষণ করে। এর কারণ হচ্ছে সমান আয়তনের একটি বুদবুদে পানির ফোটা হতে কম পানি থাকে।

সমুদ্রের ফেনার বিজ্ঞানসম্মত কারণঃ

এর ফলে খুব বেশি সূর্যের আলো শোষিত হতে পারে না এবং এর ভেতরকার বাতাস আলো মোটেই শোষণ করে না। ফলে সূর্যের আলোক রশ্মির বেশিরভাগ বুদবুদের ভেতর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে থাকে। অপরদিকে পুরোটাই থাকে পানি, যা তুলনামূলক বেশি আলো শোষণ করে। এই ঘটনাচক্রের কারণে পরে ঢেউ এর পানি সমুদ্রের পানির অপেক্ষায় বেশি উজ্জ্বল দেখায়। ফলে আমরা সমুদ্রের ঢেউএর ফেনাগুলোকে সাদা রংয়ের দেখতে পাই।

সুতরাং আমরা এই বিষয়টি সম্পর্কে উপরোক্ত বৈজ্ঞানিক আলোচনা থেকে স্পষ্ট ধারণা লাভ করলাম যে, পানির বুদবুদ ও পানির ফোটা এবং সূর্য থেকে আলোকরশ্মির আনুপাতিক হারের সমন্বয়ের কারণে সমুদ্রের ফেনা গুলোকে সাদা রঙে দেখা যায়। তাই এরপর থেকে সমুদ্রের ফেনা সাদা অবস্থায় দেখলে আমরা বিস্মিত না হয়ে এর বৈজ্ঞানিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে চিন্তা করতে পারি।